নব্য স্বৈরাচারের পতন ঘটাতে হবে: তরিকুল ইসলাম

0
89
স্বৈরাচার পতন দিবস উপলক্ষে শনিবার খুলনা মহানগর ও জেলা বিএনপির যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির নেতা তরিকুল ইসলাম
স্বৈরাচার পতন দিবস উপলক্ষে শনিবার খুলনা মহানগর ও জেলা বিএনপির যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির নেতা তরিকুল ইসলাম
স্বৈরাচার পতন দিবস উপলক্ষে শনিবার খুলনা মহানগর ও জেলা বিএনপির যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির নেতা তরিকুল ইসলাম

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য তরিকুল ইসলাম বলেছেন, নব্য স্বৈরাচারের পতন ঘটাতে হবে। এ জন্য দলের নেতাকর্মীদেরকে মানুষের আস্থা অর্জন করতে হবে।

স্বৈরাচার পতন দিবস উপলক্ষে শনিবার খুলনা মহানগর ও জেলা বিএনপির যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তরিকুল ইসলাম বলেন, সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন বাড়ানোর কারনে ১৭/১৮ হাজার কোটি টাকা অতিরিক্ত ব্যয় হবে। কিন্তু সাধারণ মানুষ কিভাবে বাঁচবে সে বিষয়ে সরকারের কোনো ভাবনা নেই। সরকার ভারত থেকে অবাধে চাল আমদানির সুযোগ দিয়েছে। আর আমাদের কৃষক এখন তাদের উৎপাদিত ধানের ন্যায্য মূল্য পাচ্ছেনা।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, সরকার অনিয়ম, দুর্নীতি ও লুটপাট ছাড়া কিছুই দিতে পারেনি। সরকারি বেসরকারি আর্থিক প্রতিষ্ঠান ব্যাংক-বিমা থেকে ৪২ হাজার কোটি টাকা লুটপাট হয়েছে। এমন একদিন আসবে যখন ছাত্রলীগ যুবলীগ দেশের মানচিত্রটাই লুটেপুটে নেবে।

তরিকুল ইসলাম বলেন, এরশাদ বন্দুকের নলের মুখে গণতান্ত্রিক সরকার ব্যবস্থা হঠিয়ে সামরিক স্বৈরশাসন কায়েম করেছিল। সেদিন আজকের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রতিক্রিয়া জানাতে বলেছিলেন, আই অ্যাম নট আনহ্যাপি।

খুলনা জেলা আইনজীবী সমিতি মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন বিএনপির কেন্দ্রীয় সহ সাংগঠনিক সম্পাদক ও মহানগর সভাপতি নজরুল ইসলাম মঞ্জু।

বিশেষ অতিথি ছিলেন বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য এম নুরুল ইসলাম দাদু ভাই।

ফখরুল আলম ও আসাদুজ্জামান মুরাদের সঞ্চালনায় আলোচনায় অংশ নেন মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক খুলনা সিটি মেয়র মনিরুজ্জামান মনি, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট এস এম শফিকুল আলম মনা, বিএনপি নেতা সাহারুজ্জামান মোর্ত্তজা, কাজী সেকেন্দার আলী ডালিম, সৈয়দা নার্গিস আলী, প্রফেসর আব্দুল মান্নান, খান আলী মুনসুর প্রমুখ।

এসএম