স্মার্টফোনে দাম্পত্য সংকট

0
86
প্রযুক্তি দিচ্ছে বেগ, কেড়ে নিচ্ছে আবেগ

৭০ শতাংশ ব্রিটিশ নারী মনে করছেন, স্মার্টফোন তাদের দৃঢ় দাম্পত্য সম্পর্ককেও টলিয়ে দিচ্ছে। ব্যাহত করছে রোম্যান্স। সম্প্রতি যুক্তরাজ্যের ব্রিংহাম বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষকের মনোবৈজ্ঞানিক এক গবেষণায় এমন তথ্য উঠে এসেছে। গবেষণাটি সাইকোলজি অব পপুলার মিডিয়া কালচার জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে।

প্রযুক্তি দিচ্ছে বেগ, কেড়ে নিচ্ছে আবেগ
প্রযুক্তি দিচ্ছে বেগ, কেড়ে নিচ্ছে আবেগ

গবেষণায় দেখা গেছে, প্রযুক্তি দাম্পত্যে ‘টেকনোফারেন্স’ সৃষ্টি করে সম্পর্কে ফাটল ধরাচ্ছে।

গবেষক দলের প্রধান সারাহ কোয়নি বলেন, যখন মনের কথা বলা বা সঙ্গীর কাছাকাছি আসার জন্য কেউ চেষ্টা করছেন তখন অন্যজন ফেসবুক বা অন্য কোনো স্যোশাল মিডিয়াতে বুদ হয়ে থাকছেন। এ ঘটনা এখন ঘরে-বাইরে সর্বত্র।

গবেষণায় ১৪৩ জন বিবাহিত নারীর ওপর জরিপ চালানো হয়। তাদেরকে ফোন, টিভি, কম্পিউটার এবং টাবলেট ব্যবহারের অভ্যাস এবং প্রভাব সম্পর্কে প্রশ্ন করা হয়। জরিপে তাদের সঙ্গীর প্রযুক্তি ব্যবহার এবং সম্পর্কে তাদের সন্তুষ্টি সম্পর্কেও প্রশ্ন করা হয়।

উত্তরে অংশগ্রহণকারীরা বলেছেন, সম্পর্কে সবচেয়ে হস্তক্ষেপকারী প্রযুক্তি মোবাইল এবং কম্পিউটার।

৬২ শতাংশ নারী বলেন, যখন তারা অবসরে থাকেন তখন সঙ্গী অন্তত ১ বার ফোন নিয়ে নাড়াচাড়া শুরু করেন।

সম্পর্ক বিশারদ এলিসন ব্রুজেক এনপিআর ওয়েবসাইটে লিখেছেন, ৪০ শতাংশ নারীর মনে করেন, তাদের সঙ্গী তার সঙ্গে কথা বলার চেয়ে টিভি দেখতে বেশি পছন্দ করেন। ৩৩ শতাংশ নারী বলেন, আলোচনা কিংবা খাবার মাঝখানেও তাদের সঙ্গী ফোন ধরেন।

সামনা-সামনি আলোচনার সময় সঙ্গী অন্যকে টেক্সট বা ইমেইল পাঠান বলে জানান ৩৩ শতাংশ নারী।

টেকনোফারেন্স কমিয়ে আনার প্রসঙ্গে কোয়নি বলেন, দম্পতিদের প্রযুক্তি ব্যবহারে নির্দিষ্ট কোনো বাধ্যবাধকতা না থাকলেও শয়নকক্ষে স্মার্টফোন এবং ট্যাবলেটের চেয়ে সঙ্গীর দিকে বেশি নজর দেওয়া জরুরি। সূত্র: মেইল অনলাইন

ইউএম/