টিআইয়ের প্রতিবেদন প্রত্যাখ্যান দুদকের

0
76
দুদক
দুর্নীতি দমন কমিশনের লোগো। ফাইল ছবি

দুদকট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনালের (টিআই) দুর্নীতির ধারণা সূচক প্রতিবেদন প্রত্যাখ্যান করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

বুধবার সকালে টিআইয়ের প্রতিবেদনটি প্রকাশের পর একথা জানান সংস্থাটির কমিশনার সাহাবুদ্দিন।

দুদকের কমিশনার বলেন, টিআইবির পরিসংখ্যান প্রকৃত চিত্রের চেয়ে ভিন্নতর। দুদক তাদের প্রতিবেদনের সঙ্গে একমত নয়।

টিআইবির প্রতিবেদন গ্রহণযোগ্য নয় উল্লেখ করে সাহাবুদ্দিন বলেন, বাস্তবতার নিরিখে প্রকাশিত প্রতিবেদনটি গ্রহণযোগ্য নয়। যদিও তাদের পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদনটি আমরা এখনো হাতে পাইনি। হাতে পেলেও সেটা গ্রহণযোগ্য হবে বলে মনে করি না।

দেশে দুর্নীতির পরিমাণ কমে এসেছে এমন দাবী করে তিনি বলেন, দুদক আগের যেকোনো সময়ের তুলনায় অনেক সক্রিয়। এ কারণে দুর্নীতির পরিমাণও কমে এসেছে।’

আজ সকালে টিআইয়ের প্রকাশিত দুর্নীতির ধারণা সূচকে বলা হয়, বাংলাদেশ বিশ্বের ১৪তম দুর্নীতিগ্রস্ত দেশ। ১৭৪টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের এই অবস্থান।  গত বছর ১৬তম অবস্থানে ছিল বাংলাদেশ।

প্রতিবেদনে বলা হয়, বিশ্বের সবচেয়ে কম দুর্নীতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় শীর্ষে অবস্থান করছে ডেনমার্ক। ৯১ স্কোর পেয়ে তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে নিউজিল্যান্ড এবং তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে ফিনল্যান্ড। আর মাত্র ৮ স্কোর পেয়ে এ তালিকায় সর্বনিম্ন অবস্থানে রয়েছে যৌথভাবে উত্তর কোরিয়া ও সোমালিয়া। ১১ ও ১২ স্কোর পেয়ে তালিকায় দ্বিতীয় ও তৃতীয় সর্বনিম্ন অবস্থানে রয়েছে সুদান ও আফগানিস্তান।

দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে সবচেয়ে কম দুর্নীতিগ্রস্ত দেশ হলো ভুটান। ২০১৪ সালে এ দেশটির স্কোর ৬৫ ও ঊর্ধ্বক্রম অনুযায়ী অবস্থান ৩০। ঊর্ধ্বক্রম অনুযায়ী এরপরে যৌথভাবে রয়েছে ভারত ও শ্রীলঙ্কা। যাদের স্কোর ৩৮ এবং অবস্থান ৮৫। এরপর ২৯ স্কোর পেয়ে ১২৬ অবস্থানে রয়েছে নেপাল ও পাকিস্তান।

বাংলাদেশ পেয়েছে ২৫ নম্বর। একই নম্বর পেয়ে দুর্নীতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় বাংলাদেশের সঙ্গে ১৪তম অবস্থানে আরও আছে গিনি, কেনিয়া, লাওস ও পাপুয়া নিউগিনি।