রসিকতার খেসারত ৯০ হাজার ডলার!

0
120
ফ্লোরিডার মায়ামি বিমানবন্দর

ভেনিজুয়েলার ডাক্তার ম্যানুয়েল আলভারাদো মজা করতে ভালোবাসেন। কিন্তু তাকে মজার মাসুল গুনতে হলো নগদ প্রায় ৯০,০০০ মার্কিন ডলার। বিমানবন্দরের নিরাপত্তা কর্মকর্তা ম্যানুয়েলের কাছে জানতে চাইলেন, লাগেজে কী আছে? তিনি অবলীলায় বলে দিলেন, সি-৪ বিস্ফোরক দ্রব্য বহন করছেন। তার ‘মজার’ উত্তরে বিমানবন্দরে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। শুরু হয় হুড়োহুড়ি—কে কার আগে পালাবে! ছুটতে ছুটতে পুলিশের বোমা উদ্ধারকারী দলও এসে হাজির। এমনকি বিমান ছাড়তেও হয়ে যায় দেরি। তার ‘বেসরিক’ রসিকতায় প্রায় ৯০ হাজার ডলার জরিমানা করা হয় তাকে।

ফ্লোরিডার মায়ামি বিমানবন্দর
ফ্লোরিডার মায়ামি বিমানবন্দর

আজ মঙ্গলবার বিজনেস ইনসাইডার অনলাইনের খবরে জানানো হয়,  ঘটনাটি ঘটে যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যের মায়ামি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে। গত ২২ অক্টোবর বোগোটা যাওয়ার উদ্দেশ্যে মায়ামি বিমানবন্দরে আসেন ম্যানুয়েল।

নিরাপত্তারক্ষীরা নিয়মমাফিক তার ব্যাগে কী আছে জিজ্ঞাসা করলে ভেনেজুয়েলার এই ডাক্তার বলেন ব্যাগে সি ফোর এক্সপ্লোসিভ নিয়ে তিনি ঘুরছেন। আর এর পরেই ঘটে হুলস্থুল কাণ্ড।

ম্যানুয়েলের আইনজীবী জানিয়েছেন ”উনি অত্যন্ত অনুতপ্ত। কাউকে আতঙ্কিত করার কোনও উদ্দেশ্যই ম্যানুয়েলের ছিল না। মজা করতে গিয়ে সম্ভবত নিজের জীবনের সবথেকে বড় ভুলটা করে ফেলেছেন উনি।”

ম্যানুয়েলের বিরুদ্ধে মিথ্যা বোমার আতঙ্ক ছড়ানো ও অপরাধমূলক আচরণের মামলা করা হয়েছিল। ৮৯,৭১২ মার্কিন ডলার জরিমানা দিয়ে অবশেষে মুক্তি পেয়েছেন তিনি।

ইউএম/