গণপূর্তের প্রধান প্রকৌশলীও ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা!

0
89
মুক্তিযুদ্ধের সাময়িক সনদপত্র। ফাইল ছবি
certificate_86035
ফাইল ছবি

এবার ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা সনদ গ্রহণের অভিযোগ উঠেছে গণপূর্ত অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী কবির আহমেদ ভূঞা’র বিরুদ্ধে। ভুয়া সনদ ব্যবহার করে অবৈধভাবে পদোন্নতি লাভ ও অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগও উঠেছে তার বিরুদ্ধে।

সম্প্রতি তার বিরুদ্ধে এমন সব অভিযোগ ওঠার পর প্রাথমিক যাচাই-বাছাই শেষে অনুসন্ধানেও নেমেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। দুদক সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

দুদক সূত্রে জানা যায়, গণপূর্ত অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী কবির আহমেদ ভূঞা চাকুরীকালীন সময়ে অবৈধ উপায়ে মুক্তিযোদ্ধা সনদ গ্রহণ করেছেন। এছাড়া বিভিন্ন সময়ে বিধিবহির্ভূতভাবে পদোন্নতি লাভ ও অবৈধ সম্পদ অর্জনসহ বিভিন্ন দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

সূত্র আরও জানায়, রাজধানী ঢাকার শেওড়াপাড়ার মেসার্স আমিন ব্রাদার্সসহ  ৪টি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের দাখিল করা অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগটি কমিশনের কাছে ‍যুক্তিযুক্ত মনে হওয়ায় কমিশন তা আমলে নিয়ে অনুসন্ধান করার সিদ্ধান্ত নেয়।

দুদকের বিশেষ অনুসন্ধান ও তদন্তের মহাপরিচালক অভিযোগটি অনুসন্ধান করে দ্রুত প্রতিবেদন কমিশনে জমা দেওয়ার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, এর আগে বিনিয়োগ বোর্ডে চুক্তিভিত্তিক নিয়োগপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মোল্লা ওয়াহিদুজ্জামান, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের (ওএসডি) সচিব কেএইচ মাসুদ সিদ্দিকী, একই মন্ত্রণালয় থেকে ওএসডি হওয়া যুগ্ম-সচিব আবুল কাসেম তালুকদার, পাবলিক সার্ভিস কমিশনের সচিব একেএম আমির হোসেন এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ সচিব নিয়াজউদ্দিন মিঞাসহ ৫ সচিবসহ বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কেন্দ্রীয় কাউন্সিলের ভাইস চেয়ারম্যান ও স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতরের (এলজিইডি) প্রধান প্রকৌশলী ওয়াহিদুর রহমান, অপর ভাইস চেয়ারম্যান এসএম মুরতুজা হোসেন ও একই কমিটির সদস্য মাহবুবুর হক চিশতির মুক্তিযোদ্ধা সনদ ভুয়া হিসেবে প্রমাণ পায় দুদক।

এছাড়া আর্মস পুলিশ ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) প্রধান ও অতিরিক্ত আইজিপি শেখ হেমায়েত হোসেনসহ বেশ কয়েকজন সরকারি কর্মকর্তার ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা সনদ নেওয়ার অভিযোগ অনুসন্ধান করছে দুদক।

এইউ নয়ন/এসএম