কুষ্টিয়ায় পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার

0
65
eb bus
বাসচাপায় ছাত্র মৃত্যুর ঘটনায় ইবি বাসে আগুন দিয়েছে বিক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থীরা-ফাইল ছবি
eb bus
বাসচাপায় ছাত্র মৃত্যুর ঘটনায় ইবি বাসে আগুন দিয়েছে বিক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থীরা-ফাইল ছবি

কুষ্টিয়ায় ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র নিহতের পর ৩০টি বাস পুড়িয়ে দেওয়ার প্রতিবাদে ডাকা পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার করেছে পরিবহন মালিক-শ্রমিক সংগঠনগুলো।

সোমবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপচার্য ভবনে এক বৈঠকের পর বাস মালিক সমিতি, মটর শ্রমিক ইউনিয়ন, ট্রাক মালিক সমিতি, ট্রাক ট্যাংক লরি শ্রমিকসহ পাঁচটি সংগঠন কুষ্টিয়া-খুলনা মহাসড়কে ডাকা অনির্দিষ্টকালের এই পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহারের ঘোষণা দেয়।

বৈঠকে পরিবহন মালিক-শ্রমিক নেতারা ছাড়াও জেলা প্রশাসন, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আব্দুল হাকিম সরকার জানিয়েছেন, মঙ্গলবার বেলা ১১টার মধ্যে শিক্ষার্থীর হলত্যাগের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বিক্ষুব্ধ ছাত্রদের তাণ্ডবের পর গত রোববার বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ করে দিয়ে শিক্ষার্থীদের হল ছাড়তে বলা হলেও পরিবহন ধর্মঘট থাকায় ছাত্রছাত্রীরা হল ছাড়তে পারছিল না।

উপাচার্য জানান, জেলা প্রশাসন, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, ও পরিবহন মালিক সংগঠনের প্রতিনিধিদের নিয়ে একটি ‘ক্ষতি নির্ধারণ কমিটি’ গঠনের সিদ্ধান্ত হয়েছে, যারা আগামী সাত দিনের মধ্যে ক্ষতির তালিকা করে ক্ষতিপূরণের সুপারিশ দেবে।

রোববার দুপুরে ক্যাম্পাসের ডায়না চত্বরে দুটি বাসের মধ্যে চাপা পড়ে নিহত হন বায়োটেকনোলজি অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ছাত্র তৌহিদুর রহমান টিটু। এরপর বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা ভাংচুর শুরু করে এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব ও ভাড়া করা ৩০টি বাস পুড়িয়ে দেয়।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ এলে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে সংঘর্ষ বাঁধে। এ সময় পুলিশের রবার বুলেট এবং টিয়ার শেলে অন্তত ১০ শিক্ষার্থী আহত হন।

নির্বিচারে বাস পোড়ানোর প্রতিবাদে ওইদিনই কুষ্টিয়া থেকে সব রুটে ধর্মঘট শুরু করে পাঁচ সংগঠন।

এসএম