ওয়ানডেতেও বাংলাওয়াশ

0
91

খালি হাতেই ফিরতে হলো জিম্বাবুয়েকে। শেষ ম্যাচে দুরন্ত শুরু করেও পরাজয়ের বৃত্ত থেকে বের হতে পারেনি সফরকারীরা। তাই টেস্টের পর ওয়ানডে সিরিজেও বাংলা্‌ওয়াশের শিকার চিগাম্বুরা বাহিনী।

Mahmudullah
ব্যাটিংয়ে মাহমুদুল্লাহ।

সোমবার ৫ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের শেষ ম্যাচে ৫ উইকেটের জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। এ জয়ে আগের ম্যাচেই তৈরি করে রাখা বাংলাওয়াশ মিশনের শেষ ধাপ পেরোয় টাইগাররা। এ নিয়ে ওয়ানডেতে জিম্বাবুয়েকে ২য় বারের মতো ধবলধোলাই করলো বাংলাদেশ।

অতিথিদের দেওয়া ১২৯ রানের টার্গেট  মাত্র ২৪.৩ ওভারেই টপকে যায় বাংলাদেশ। তবে অনায়াসে এ লক্ষ্য অতিক্রম করা গেছে তা বলা যাবে না।  এই রান তুলতেই ৫ উইকেট হারিয়েছে মাশরাফি বাহিনী। জিম্বাবুয়ের বোলারদের আক্ষেপ তাতে আরও একটু বেড়েছে। ইশ! স্কোরবোর্ডে যদি আরও কিছু রান তোলা থাকতো।

সোলেমন মায়ারের বলে পর পর ২টি চার মেরে দলের জয় এবং ব্যক্তিগত অর্ধশতক- দুটোই পূর্ণ করেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। ৫১ রানে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ এবং ১৩ রানে সাব্বির রহমান অপরাজিত থাকেন।

৪.২ ওভারে দলীয় ১৮ রানে ব্যক্তিগত ১০ রানে পানিয়াঙ্গার বলে বাউন্ডারিতে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরেন উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল।

৫.২ ওভারে দলীয় ২৮ রানে আউট হন অপর উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান আনামুল হক। চ্যাতারার বলে মাসাকাদজার হাতে ক্যাচ দিয়ে আউট হওয়ার আগে আনামুলের সংগ্রহ ৮ রান।

চ্যাতারার করা পাওয়ার প্লে-এর শেষ ওভারের শেষ বলে সিকান্দার রাজার হাতে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরেন প্রথমবার জাতীয় দলে সুযোগ পাওয়া সৌম্য সরকার। ৩০ বলে ২০ রান সংগ্রহ করেছে এই বামহাতি ব্যাটসম্যান।

এরপর কোনো রান না করেই প্যাভিলিয়নে ফিরলেন সাকিব আল হাসান। পানিয়াঙ্গারার বলে মাসাকাদজার হাতে ক্যাচ দিয়ে আউট হন এই অলরাউন্ডার।

ব্যক্তিগত ১১ রানে সাজঘরে ফিরেছেন মুশফিকুর রহিম। চ্যাতারার বলে টেইলরের হাতে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরেন তিনি।

জিম্বাবুয়ের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট নিয়েছেন চ্যাতারা। অপর ২টি উইকেট শিকার করেছেন পানিয়াঙ্গারা।

সোমবার দুপুর মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক এল্টন চিগুম্বুরা। দুপুর সাড়ে ১২টায় খেলাটি শুরু হয়।

প্রথমে ব্যাট করতে নেমে মাত্র ৩০ ওভারে সবকটি উইকেট হারিয়ে ১২৮ রান সংগ্রহ করে জিম্বাবুয়ে। অতিথিদের পক্ষে ম্যাচের ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রান করেছেন মাসাকাদজা। ৫৪ বল খেলে ৫২ রান করেছেন এই উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান।

২য় সর্বোচ্চ রান করেছেন সিবান্দা। ৫১ বল খেলে ৩৭ রান করেছেন তিনি।

বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪ উইকেট নিয়েছেন তাইজুল ইসলাম। ৭ ওভারে ৩০ রান দিয়ে ৩ উইকেট নিয়েছেন সাকিব আল হাসান। এছাড়া জুবায়ের ২ উইকেট এবং মাশরাফি একটি উইকেট নিয়েছেন।

বাংলাদেশ দলে আজকের ম্যাচে ২টি পরিবর্তন আনা হয়েছে। ইমরুল কায়েস ও রুবেল হোসেনের পরিবর্তে দলে এসেছেন তাইজুল ইসলাম ও সৌম্য সরকার।

জিম্বাবুয়ে দলেও এসেছে পরিবর্তন। ২ ম্যাচ পর আবারও মূল একাদশে ডাক পেয়েছেন উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান সিকান্দার রাজা। এছাড়া পানিয়াঙ্গারা, নিয়াম্বুও ফিরেছেন মূল একাদশে। দল থেকে বাদ পড়েছেন মোর, চ্যাকাব্বা এবং মাদজিভা।

এর আগে চট্টগ্রামে ২টি এবং ঢাকায় ২টি ম্যাচে জিম্বাবুয়েকে হারিয়ে সিরিজ জয় নিশ্চিত করেছে মাশরাফি বাহিনী।

বাংলাদেশ দল: মাশরাফি বিন মুর্তজা (অধিনায়ক), সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, আনামুল হক, সাব্বির রহমান, সৌম্য সরকার, আবুল হাসান, তাইজুল ইসলাম এবং জুবায়ের হোসেন।

জিম্বাবুয়ে দল: এল্টন চিগুম্বুরা (অধিনায়ক), হামিল্টন মাসাকাদজা, সিকান্দার রাজা, সিবান্দা, ব্রেন্ডন টেইলর, সলমন মায়ার, তিমাইচেন ম্যারুমা, পানিয়াঙ্গারা, চ্যাতারা, নিয়াম্বু এবং ক্যামানগুজি।

এমই/