যেখানে তাইজুলই প্রথম

0
84

প্রভাত দিনের পূর্বাভাস দেয়- এই আপ্তবাক্যটি সত্য মানলে, তাইজুল ইসলাম একদিন রেকর্ডের বরপুত্র  হবেন তা বলাই যায়। চলতি বছর ওয়েস্ট ইন্ডিজে টেস্ট অভিষেক হয় ২২ বছর বয়সী এই স্পিনারের। নিজের প্রথম টেস্টেই ৫ উইকেট নেওয়ার কৃতিত্ব দেখিয়েছিলেন তাইজুল। কয়েক দিন আগে টেস্টে দেশের হয়ে করলেন এক ইনিংসে সর্বোচ্চ উইকেট-শিকারের রেকর্ড। এবার ওয়ানডে অভিষেকে এমন এক কীর্তি গড়লেন যা ক্রিকেটের ইতিহাসেই প্রথম! বিশ্বের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে ওয়ানডে অভিষেকেই হ্যাটট্রিকের অনন্য রেকর্ড গড়েছেন নাটোরের এই তরুণ।

Taijul Islam
সোমবার শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজের শেষ ম্যাচে অভিষেক হয়েছে তাইজুলের। প্রথম ম্যাচে হ্যাট্রিক করে বিশ্ব রেকর্ড করেছেন তিনি। হ্যাট্রিকের পর জুবায়ের হোসেনকে ঘিরে সতীর্থদের উল্লাস।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের ৫ম ও শেষ ম্যাচে শেরে বাংলা স্টেডিয়ামের দর্শকদের উল্লাসে মাতিয়ে রেকর্ড গড়লেন তাইজুল। ইনিংসের ২৭তম ওভারে ব্যক্তিগত ৬ষ্ঠ ওভারে বোলিংয়ে এসে প্রথম বলেই আগের ম্যাচে ফিফটি হাঁকানো সলোমন মিরকে দিয়ে এক দিনের ক্রিকেটে উইকেট সূচনা করেন এই টাইগার অফ স্পিনার। ওই ওভারের২য়, ৩য়, ৪র্থ ও ৫ম বলটি খুব কষ্ট করেই পার করলেন পানিয়াঙ্গারা। শেষ বলটিতে পরিষ্কার বোল্ড করে উইকেট সংখ্যা বাড়ালেন তাইজুল।

এরপর ইনিংসের ২৯তম ওভারে বল হাতে নিজের ৭ম ওভার করতে আসেন তিনি। ১ম বলেই নিয়াম্বুকে এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলেন। নিজের উইকেট সংখ্যা বাড়িয়ে ৩ করে নেন এবং আরাধ্যের হাটট্রিকের সুযোগ তার সামনে। ২য় বলে নতুন ব্যাটসমান টেন্ডাই চাতারাকে আরেকটি স্বপ্নিল ডেলিভারিতে বোল্ড করে অভিষেকেই হ্যাটট্রিক তুলে নেন তাইজুল ইসলাম।

ডানহাতি এই অর্থোডক্স স্পিনারের অনন্য কীর্তির আরও একটি ভিন্ন মাত্রা আছে। ক্রিকেটে হ্যাটট্রিক এমনিতেই বিরল ঘটনা। আর স্পিনারদের হ্যাটট্রিক তো আরও দুর্লভ।  ৩ হাজারেরও বেশি ওয়ানডে ম্যাচ হ্যাটট্রিক দেখেছে মাত্র ৩৬ বার (তাইজুলেরটি সহ)। এর মধ্যে ফাস্ট বোলাররা এই কীর্তি করে দেখিয়েছেন ৩১ বার। স্পিনারদের মধ্যে মাত্র ৪র্থ বোলার হিসেবে হ্যাটট্রিকের নজির গড়লেন তাইজুল।  আরেক বাংলাদেশি স্পিনার আবদুর রাজ্জাকও আছেন এই তালিকায়। বাকি ২জন হলেন পাকিস্তানের সাকলায়েন মুসতাক ও জিম্বাবুয়ের প্রসপার উতসায়া।

তাইজুলের অসাধারণ এই হ্যাটট্রিক বাংলাদেশের বোলারদের মধ্যে ৪র্থ। ২০০৬ সালের ২ অগাস্ট জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রথম বোলার হিসেবে হ্যাটট্রিক করেন শাহাদাত হোসেন।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষেই ২০১০ সালের ৩ ডিসেম্বর বাংলাদেশের ২য় হ্যাটট্রিকটি করেন আব্দুর রাজ্জাক। গত বছর ৩য় হ্যাটট্রিকটি করেন রুবেল হোসেন, নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে।

এআর/