ফরিদপুরে চরভদ্রাসনের বিভিন রাস্তার বেহাল দশা
শুক্রবার, ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » ঢাকা

ফরিদপুরে চরভদ্রাসনের বিভিন রাস্তার বেহাল দশা

Faridpurফরিদপুর জেলার চরভদ্রাসন উপজেলা সদরে জনগুরুত্বপূর্ণ রাস্তাগুলো দীর্ঘ দিন ধরে সংস্কারের অভাবে যান চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। ফলে উপজেলার যাত্রীদের প্রতিনিয়ত সীমাহীন ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।

জানা গেছে, উপজেলা সদর থেকে জেলা শহরে যাতায়াতের জাকেরের সুরা নামক এলাকার বড় ব্রীজ পর্যন্ত সাত কিলোমিটার আয়তনের পাঁকা রাস্তা ও বালিয়া ডাঙ্গী গ্রামের বেড়িবাঁধ সড়কের চার রাস্তার মোড় এলাকা থেকে জেলখানা পর্যন্ত তিন  কিলোমিটার সড়কে বেহাল অবস্থায় রয়েছে।

এছাড়া উপজেলা সদরে পদ্মা নদীর গোপালপুর ঘাটের রাস্তাসহ নিভৃত পল্লি অঞ্চলের পাকা ও ইটের রাস্তা ভেঙ্গেচুরে একাকার হয়ে গেছে। এ রাস্তাগুলো পাঁচ বছর ধরে খানা খন্দে ভরা থাকলেও সংস্কারের কোন উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে না।

উপজেলার জনগুরুত্বপূর্ণ এসব রাস্তার মধ্যে বালিয়া ডাঙ্গী গ্রামের জেলখানা রাস্তাটি বছরের পর বছর ধরে বড় বড় গর্ত হওয়ার পর ভারী লরি চলাচল অব্যাহত থাকার ফলে রাস্তার পাকা অংশ চূর্ণবিচূর্ণ হয়ে এখন শুধু বালু স্তুপে রূপ নিয়েছে। এ রাস্তা দিয়েই যাত্রীরা অটোবাইক, টেম্পু, মোটরসাইকেল, ভ্যান-রিক্সাযোগে সীমাহীন ভোগান্তি শিকার হয়ে যাতায়াত করছে। রাস্তা ঘাটের এসব করুন দুর্দশা থাকা স্বত্তেও প্রশাসনিক জটিলতায় তা মেরামত করা সম্ভব হচ্ছে না বলে জানা গেছে।

উপজেলা প্রকৌশলী মো. খলিলুর রহমান বলেন,  উপজেলা সদর থেকে জাকেরের সুরা ব্রীজ পর্যন্ত বিধ্বস্ত পাকা সড়কটির সংস্কারের জন্য টেন্ডার হয়েছে, ঠিকাদারদের গাফলাতির কারনে কার্যাদেশ দিতে পারছিনা। বালিয়া ডাঙ্গী গ্রামের জেলখানা সড়কটিও দ্রুত সংস্কার হবে বলে তিনি জানান।

বিধ্বস্ত রাস্তাগুলো ঘুরে দেখা যায়, পাকা সড়কের মধ্যে বড় বড় গর্ত সৃষ্টি হয়ে আছে। তার ওপর দিয়ে মাটি টানা ট্রাক ও ভারী যান চলাচল অব্যাহত রয়েছে। ফলে গাড়ী চাকায় রাস্তার পাকা অংশ পিষ্ট হয়ে বালু স্তুপে পরিনত হয়েছে। উক্ত রাস্তা দিয়ে পায়ে হাটতে যেয়ে যাত্রীরা চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন।

দুই পথচারী সারিমন আক্তার (২২) ও লাবনী (১৮) জানায়, জেলাখানা থেকে অটোবাইক নিয়ে উপজেলা সদরে দেড় কি.মি. পথে আসতে প্রায় এক ঘন্টা সময় লেগে গেছে, বেশীরভাগ রাস্তায়ই অটোবাইক ঠেলে ঠেলে হেটে আসতে হয়েছ”।

এই বিভাগের আরো সংবাদ