ইসলামী ব্যাংকের বোর্ড অব ডিরেক্টর্স সভা অনুষ্ঠিত

0
96
ibbl
শুক্রবার ইসলামী ব্যাংক টাওয়ারে ব্যাংকের বোর্ড রুমে ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড-এর বোর্ড অব ডাইরেক্টরস-এর সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে
ibbl
শুক্রবার ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড-এর বোর্ড অব ডাইরেক্টরস-এর সভা অনুষ্ঠিত হয়।

ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড-এর বোর্ড অব ডিরেক্টর্স-এর সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার ইসলামী ব্যাংক টাওয়ারে ব্যাংকের বোর্ড রুমে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

ব্যাংকের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবু নাসের মোহাম্মদ আবদুজ জাহেরের সভাপতিত্বে এতে উপস্থিত ছিলেন ব্যাংকের ম্যানেজিং ডাইরেক্টর মোহাম্মদ আবদুল মান্নান, শরী‘আহ্ সুপারভাইজরি কমিটির সদস্য সচিব ও ইন্টারন্যাশনাল ইসলামিক ইউনিভার্সিটি চট্টগ্রাম-এর ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. আবু বকর রফিক এবং দেশি বিদেশি ডাইরেক্টরগণ।

অধ্যাপক আবু নাসের মোহাম্মদ আবদুজ জাহের বলেন, ইসলামী ব্যাংক বহুমুখী বাণিজ্যিক কার্যক্রমের মাধ্যমে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে কাজ করছে।

বর্তমান সরকার বিভিন্ন উন্নয়ন কার্যক্রম বাস্তবায়নের মাধ্যমে ব্যক্তি, সমাজ ও রাষ্ট্রীয় জীবনে সুখ ও সমৃদ্ধি আনতে কাজ করছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ইসলামী ব্যাংক সরকারের সহায়ক হিসেবে একই উদ্দেশ্যে কাজ করছে। বাংলাদেশ ব্যাংক ও বিএসইসিসহ সকল নিয়ন্ত্রক কর্র্তৃপক্ষের গাইডলাইন, নির্দেশনা এবং নীতিমালা যথাযথ পরিপালন করতে ইসলামী ব্যাংক মানসিক, নৈতিক এবং প্রায়োগিক ক্ষেত্রেও প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

তিনি বলেন, শরীআহ’র নীতিমালা শতভাগ পালন করতে এ ব্যাংক বদ্ধপরিকর। শুরু থেকে ইসলামী ব্যাংক আমানত, বিনিয়োগ, নিয়োগ ও ব্যয়সহ সকল কার্যক্রমে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করে আসছে।

ব্যাংক চেয়ারম্যান বলেন, আমাদের সকল ব্যাংকিং লেনদেন বাংলাদেশ ব্যাংকসহ অভ্যন্তরীণ ও বহিঃনিরীক্ষক দ্বারা নিরীক্ষিত এবং বিধিবদ্ধ। যে কোনো রেগুলেটরি কর্তৃপক্ষের পরিদর্শনের জন্য ইসলামী ব্যাংকের সকল কার্যক্রম উন্মুক্ত।

অধ্যাপক আবু নাসের বলেন, নৈতিকতা, আইন, দেশ ও সমাজবিরোধী কোন কাজে ইসলামী ব্যাংক কখনো কোন বিনিয়োগ বা সহায়তা করেনি। যে কোন সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের ব্যাপারে ইসলামী ব্যাংক সবসময় জিরো টলারেন্স প্রদর্শন করেছে।

তিনি বলেন, ইসলামী ব্যাংক দেশের ষোল কোটি মানুষের ব্যাংক। জাতি, ধর্ম, বর্ণ ও দল-মত নির্বিশেষে সকল মানুষের কল্যাণে কাজ করছে এ ব্যাংক। ব্যাংকের আমানত ও বিনিয়োগ গ্রাহকদের মধ্যে একটি বিশাল অংশ অ-মুসলিম। ব্যাংকের আরডিএস গ্রাহক ও সুবিধাভোগীদের মধ্যে একটি বৃহৎ অংশ অ-মুসলিম ও নারী। তাই এ ব্যাংক সম্পর্কে কোন মন্তব্য করার ক্ষেত্রে সকলকে আরো দায়িত্বশীল হওয়ার আহবান জানান তিনি। বিজ্ঞপ্তি।