‘বিশ্বকাপে বাংলাদেশের অধিনায়ক মাশরাফি’

0
68
মিরপুরে তৃতীয় ওয়ানডেতে জিম্বাবুয়ে ২য় উইকেট তুলে নেওয়ার পর মাশরাফি

আগামী বছর ফেব্রুয়ারি-মার্চে অস্ট্রেলিয়া-নিউজল্যান্ডে অনুষ্ঠিতব্য একাদশতম বিশ্বকাপে টাইগারদের অধিনায়ক থাকছেন মাশরাফিই। মাশরাফির কোনো সমস্যায় সাকিব আল হাসান বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দেবেন। বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন এ তথ্য জানিয়েছেন।

মিরপুরে তৃতীয় ওয়ানডেতে জিম্বাবুয়ে ২য় উইকেট তুলে নেওয়ার পর মাশরাফি
মিরপুরে তৃতীয় ওয়ানডেতে জিম্বাবুয়ে ২য় উইকেট তুলে নেওয়ার পর মাশরাফি

ধানমণ্ডিতে নিজ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে বিসিবি সভাপতি জানান, মাশরাফিকে বিশ্বকাপে অধিনায়ক না রাখার কোন কারণ নেই। বিশ্বকাপের কথা মাথায় রেখেই জিম্বাবুয়ে সিরিজের আগে ওয়ানডে এবং টেস্ট অধিনায়কত্ব আলাদা করা হয়েছে।

বিসিবি সভাপতি আরও জানান, ‘ জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে অধিনায়ক হিসেবে মাশরাফি খুব ভালো করছেন। একটা জয়ী দলের নেতৃত্বে আবারও যদি পরিবর্তন আনা হয় তাহলে তাতে ভালো হওয়ার সম্ভাবনা কম। সুতরাং, কোন সমস্যা না হলে মাশরাফিই থাকবেন অধিনায়ক।’

কোনো সমস্যার কারণে মাশরাফির বিকল্প কী হবে সেটাও জানিয়েছেন বিসিবি সভাপতি, ‘যদি কোন কারণে মাশরাফি দলে থাকতে না পারেন কিংবা অধিনায়কত্ব করতে না পারেন, তাহলে তার পরিবর্তে সাকিব আল হাসানই ওয়ানডেতে বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দেবেন।’

বাংলাদেশ দলের টেস্ট অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমের ব্যাপারে নাজমুল হাসান পাপন বলেন, ‘মুশফিকুর রহিম অবশ্যই ভালো একজন অধিনায়ক, উইকেটরক্ষক এবং ব্যাটসম্যানও বটে। আমরা চিন্তা করেছি, একসঙ্গে এতগুলো দায়িত্ব পালনে তার পক্ষে অসম্ভব হয়ে উঠতে পারে। সে যেন টেস্ট অধিনায়কত্ব এবং সাথে উইকেটকিপিং ও ব্যাটিংয়ে আরও মনযোগি হতে পারে, সে লক্ষ্যেই ওয়ানডে নেতৃত্ব পরিবর্তন করা হয়েছে।’

প্রসঙ্গত, দেশের মাটিতে ২০১১ বিশ্বকাপের আগে মাশরাফিকে অধিনায়ক বানানোর কথা ছিল। কিন্তু বিশ্বকাপের আগে ‘ইনজুরিতে’ পড়েন তিনি। পরে মাশরাফিকে বাদ দিয়েই ঘোষণা করা হয় ২০১১ বিশ্বকাপের জাতীয় দল। ওই বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক ছিলেন সাকিব আল হাসান।

ইউএম/