ভারতে শাখা খোলার ‘চেষ্টায়’ পাকিস্তানি তালেবান

0
100
TaharakTalibanPakistan
তালেবান জঙ্গিদের ফাইল ছবি
TaharakTalibanPakistan
তালেবান জঙ্গিদের ফাইল ছবি

বর্ধমান বিস্ফোরণে জড়িত সন্দেহে গ্রেপ্তার রোহিঙ্গা যুবকের মাধ্যমে পাকিস্তানের তেহরিক-ই-তালেবান (টিটিপি) ভারতে শাখা খোলার চেষ্টা করছিল বলে ধারণা করছে ভারতের জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থা- এনআইএ সদস্যরা।

তদন্ত দলটি বলছে, অভিযুক্ত খালিদ মোহাম্মদকে গত সপ্তাহে হায়দ্রারাবাদ থেকে এনআইএ ও আইবির যৌথ অভিযানে গ্রেপ্তার করা হয়। তিনি গত বছর জম্মু, উত্তর প্রদেশ ও নয়াদিল্লি ঘুরে গেছেন। খালিদের মাধ্যেমে টিটিপি তাদের শাখা প্রতিষ্ঠিত করার চেষ্টা করছিল বলে সন্দেহ করা হচ্ছে।

সোমবার টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক খবরে জানানো হয়েছে, কয়েকদিন আগে তালেবানরা ভারতের বিরুদ্ধে হুমকি দিয়েছে। একইসঙ্গে ভারতীয় উপমহাদেশে নতুন ভাবে আল কায়েদা ও আইএসআইএস প্রতিষ্ঠার ঘোষণা দিয়েছে কিন্তু এখনো পর্যন্ত দেশটিতে তাদের উপস্থিতি কিংবা প্রভাব দেখা যায়নি। এমনকি দলগুলোর সাথে সংশ্লিষ্ট কোনো সন্ত্রাসী গ্রেপ্তার হয়নি।

ভারতীয় গোয়েন্দারা জানান, ২৮ বছর বয়সী খালিদ একজন বিস্ফোরক বিশেষজ্ঞ। বাংলাদেশ-মায়ানমার সীমান্ত এলাকায় তার জঙ্গি ক্যাম্প রয়েছে। তিনি টিটিপির ৩ ট্রেইনারের হাতে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত। বাংলাদেশের সহায়তায় ওই ৩ ট্রেইনারকে পরে গ্রেপ্তার করা হয়।

এক তদন্ত কর্মকর্তা জানান, টিটিপির ওই তিন গুরুর কাছে খালিদ শক্তিশালী বোমার তৈরির প্রশিক্ষণ নেন। এরপর টিটিপির আরেক গুরু রেহমানের কাছে প্রশিক্ষণ পান। গুরুদের কাছে তিনি ছিলেন অত্যন্ত বিশ্বস্ত; সে কারণে তাদের কাছ থেকে তিনি বোমা তৈরি, বোমা বিস্ফোরণ সংক্রান্ত উচ্চ জ্ঞান লাভ করেন। এ বিষয়ে প্রশিক্ষণ দিতেও তিনি সক্ষম ছিলেন।

ওই কর্মকর্তা আরও জানান, তালেবানদের নকশার প্রথম মডেল ধ্বংস করা হয়েছে ঠিকই; কিন্তু এটি আমাদের জন্য উদ্বেগের বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে।

এর আগে গত জানুয়ারিতে ঢাকা থেকে মায়ানমারের ফখরুল হাসান, মেহমুদ ও হায়দারকে গ্রেপ্তার করা হয়। আরাকান অঞ্চলের বাসিন্দা হওয়া সত্বেও এই তিন জন পাকিস্তানে অবস্থান করতেন বলে প্রতিবেদনে জানানো হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, তালেবান সংগঠনের জন্য কর্মী নিযুক্ত করে প্রশিক্ষণ দিতে এই তিন জঙ্গিকে মায়ানমার ও বাংলাদেশে পাঠানো হয়েছিল।

এস রহমান/