ভারতে পাইলটদের ১১.৬% নারী

0
88
ভারতীয় নারী পাইলট (ফাইল ছবি)

ভারতের নারীদের জন্য কর্মজীবন এখনও বেশ কঠিন। তবে আকাশে স্বপ্নের ডানা মেলে ধরায় বিশ্বের অন্য দেশের নারীর তুলনায় ভারতীয় নারীরা অনেক এগিয়ে রয়েছেন।

ভারতীয় নারী পাইলট (ফাইল ছবি)
ভারতীয় নারী পাইলট (ফাইল ছবি)

ভারতের বিভিন্ন এয়ারলাইন্সে কর্মরত ৫ হাজার ৫০ জন পাইলটের মধ্যে ৬০০ জনের বেশি নারী। ভারতের বেসামরিক বিমান পরিবহন অধিদপ্তর (ডিজিসিএ) অনুযায়ী, নারী পাইলটের বৈশ্বিক গড় যেখানে মাত্র ৩% সেখানে ভারতে এই হার ১১.৬% এর উপরে।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভারতে এই সংখ্যা প্রতিবছর বৃদ্ধি পাচ্ছে। গত ৫ বছরে ৪ হাজার ২৬৭ জন বাণিজ্যিক পাইলটকে লাইসেন্স দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে ৬২৮ জন অর্খাৎ ১৪.৭% নারী।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, অন্যান্য দেশের তুলনায় ভারতে নারী পাইলট বেশি হওয়ার কারণ তারা পরিবারের শক্তিশালী সমর্থন পাচ্ছে। এক জন নারী পাইলট বলেন, আমি ফ্লাইটে যাওয়ার সময় নিশ্চিন্ত থাকি । এসময় আমার সন্তান; মা কিংবা শাশুড়ির কাছে থাকে।

ভারতের সর্বোচ্চ সংখ্যক নারী পাইলট আছে জেট গ্রুপে। এই গ্রুপে ২০১১ সালের অক্টোবরে ১৫২ জন নারী পাইলট ছিলেন; বর্তমানে এই সংখ্যা ১৯৪ জন।

জেট এয়ারওয়েজ’র একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, বিমানে যোগদানকারী নারী পাইলটদের সংখ্যা বছরে প্রায় ১০% বৃদ্ধি পাচ্ছে।তিনি বলেন, জেট এয়ারওয়েজে কর্মরত ১৩ হাজার ৬৭৪ কর্মীর ৩০.৫% নারী।

এয়ারইন্ডিয়া এয়ারলাইন্সে নারী পাইলটের সংখ্যা দ্বিতীয় সর্বোচ্চ। তাদের ১৭১ জন নারী পাইলট আছে। তাদের অল ওমেন ক্রু ফ্লাইট্ও আছে।

ভারতের বেসরকারি এয়ারলাইন্স ইন্ডিগোর একজন মুখপাত্র জানান, তাদের ১১ % পাইলট নারী। বর্তমানে এই সংখ্যা বাড়ছে। স্পাইসি জেট এবং গো এয়ারেও নারী পাইলটের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে।

ডিজিসিএ তথ্যে উঠে এসেছে, ২০১০ সালে লাইসেন্স পাওয়া পাইলটদের মধ্যে ১৪.৮% নারী । ২০১৩ সালে এই সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৬.৪%।

এ প্রসঙ্গে ১৯৮৮ সালে ভারতে প্রথম নারী পাইলট হিসেবে যোগদানকারী হারপ্রিত সিং বলেন, দেশে বেশকিছু বেসরকারি এয়ারলাইন্স চালু হওয়ায় নারী পাইলটরা এ পেশায় বেমি পরিমাণে আসছে।

হারপ্রিত সিং বর্তমানে ভারতীয় নারী পাইলট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি এবং এয়ার ইন্ডিয়ার নির্বাহী পরিচালক।

তিনি বলেন, নারী পাইলটদের বিশ্বব্যাপী গড় সবসময় ২-৩%। সেখানে ভারতীয় নারী পাইলটদের সংখ্যা ১০% এর বেশি।

ইন্ডিয়া গো এর একজন মুখপাত্র বলেন, আশা করি অদূর ভবিষ্যতে নারী প্রকৌশলী, নারী কেবিন ক্রু এবং নারী পাইলটরাই পুরো ফ্লাইট পরিচালনা করতে পারবে।

ইউএম/