যমুনা অয়েলকে শেয়ার বুঝিয়ে দেয়নি ওমেরা ফুয়েলস

0
127
Jamuna-Omera
যমুনা অয়েল কোম্পানি ও ওমেরা ফুয়েলস লিমিটেডের লোগো
Jamuna-Omera
যমুনা অয়েল কোম্পানি ও ওমেরা ফুয়েলস লিমিটেডের লোগো

জ্বালানি তেল আমদানি, সংরক্ষণ ও বাজারজাতকারী প্রতিষ্ঠান ওমেরা ফুয়েলস লিমিটেড তার স্পন্সর শেয়ারহোল্ডার যমুনা অয়েল কোম্পানির নামে এখনও শেয়ার বরাদ্দ করেনি। কোম্পানির ৪৩ লাখ ৭০ হাজার শেয়ারের মালিক যমুনা অয়েল; যা মোট শেয়ারের ২৫ শতাংশ।

যমুনা অয়েল কোম্পানির নিরীক্ষক তার পর্যবেক্ষণে এ তথ্য জানিয়েছে।

উল্লেখ, যমুনা অয়েল কোম্পানির জমিতে স্থাপিত হয়েছে ওমেরা ফুয়েলস লিমিটেডের প্রকল্প। ওই সুবাদে কোম্পানির ২৫ শতাংশ মালিকানা পেয়েছে যমুনা অয়েল। ওমেরা ফুয়েলসের ১৪ টি সুপরিসর ট্যাঙ্ক রয়েছে। বন্দরনগরী চট্টগ্রামের পতেঙ্গার গুপ্তখালে ৬ দশমিক ১৭ একর জমিতে এসব ট্যাঙ্কের অবস্থান। ট্যাঙ্কগুলোর সম্মিলিত ধারণ ক্ষমতা ৭০ হাজার মেট্রিক টন।

বেসরকারি বিদ্যুতকেন্দ্রগুলোর জন্য আমদানি করা ফার্নেস অয়েল সংরক্ষণের সেবা দিয়ে থাকে ওমেরা ফুয়েলস। আগামী দিনে কোম্পানিটি সব ধরনের জ্বালানি তেল নিজেরাই আমদানি করে সংরক্ষণ ও বিক্রি করবে।

গত সেপ্টেম্বর মাসে বাণিজ্যিক কার্যক্রম শুরু করেছে ওমেরা ফুয়েলস। কিন্তু এখন পর্যন্ত তারা যমুনা অয়েল কোম্পানির প্রাপ্য শেয়ারগুলো বরাদ্দ করেনি। কোম্পানির মূল স্পন্সর ইস্টকোস্ট গ্রুপের সহযোগী প্রতিষ্ঠান ইসি সিকিউরিটিজ লিমিটেড।

ইস্টকোস্ট গ্রুপের আরও একটি কোম্পানি মবিল যমুনা লুব্রিকেন্টস লিমিটেডেও রয়েছে যমুনা অয়েল কোম্পানির মালিকানা। ওই কোম্পানির প্রায় ২০ ভাগ শেয়ারের মালিক যমুনা অয়েল।

এদিকে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) নিরীক্ষা প্রতিষ্ঠানের বরাত দিয়ে কোম্পানিটির হিসাবের কিছু অসঙ্গতির খবর দিয়েছে। কোম্পানিটি প্রায় ৯ কোটি টাকার অনিশ্চিত পাওনার বিপরীতে কোনো সঞ্চিতি রাখেনি।

এছাড়াও কোম্পানির বেশ কিছু জমি অন্যের দখলে আছে। এর মধ্যে ২.১০ একর দখলে রেখেছে চিটাগং ড্রাইডক। কয়েকটি পেট্রল পাম্পের দখলে আছে দশমিক ৫১ একর জমি। এগুলো পুনরুদ্ধারে এখও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।