সব ট্যানারি একই সাথে সাভারে সরানো অসম্ভব: চুন্নু

0
81
lather
ট্যানারি কারখানা। ফাইল ছবি

শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মুজিবুল হক চুন্নু জানিয়েছেন, একই সাথে ঢাকার হাজারীবাগের সব ট্যানারি সাভারে ট্যানারি শিপ্লাঞ্চলে স্থানান্তর সম্ভব নয়। কাজটি পর্যায়ক্রমে করতে হবে।

রোববার দুপুরে রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে ‘হাজারীবাগ ট্যানারি শিল্প স্থানান্তর: শ্রমিকদের স্বার্থ সংরক্ষণ’ শীর্ষক গোলটেবিল আলোচনায় তিনি এ কথা জানান।

ট্যানারি ওয়ার্কার্স ইউনিয়ন ও বাংলাদেশ লেবার ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশন (বিএলএফ) এই অনুষ্ঠান আয়োজন করে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, পরিবেশের কথা বিবেচনা করে ট্যানারি শিল্প স্থানান্তর করতে হবে। এর কোনো বিকল্প নেই। এজন্য মালিক-শ্রমিকসহ সবার স্বার্থের দিকে খেয়াল রাখতে হবে। তাই একই সাথে ঢাকার হাজারীবাগের সব ট্যানারি সাভারে ট্যানারি শিপ্লাঞ্চলে স্থানান্তর সম্ভব নয়।

এছাড়া ট্যানারি স্থানান্তরের সঙ্গে সঙ্গেই শ্রমিকদের যাবতীয় সুযোগ-সুবিধা প্রদানের প্রক্রিয়া শেষ করা সম্ভব নয় বলেও জানান তিনি।

বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত ড্যান ডব্লিউ মজিনার সমালোচনা করে শ্রম প্রতিমন্ত্রী বলেন, তিনি (মজিনা) বাংলাদেশে এসে বড় বড় কথা বলেন। অথচ যুক্তরাষ্ট্রের মাত্র ৭ শতাংশ কারখানায় ট্রেড ইউনিয়ন আছে।

তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে সঠিকভাবে শ্রমনীতি বাস্তবায়ন হচ্ছে না। অথচ তারা বাংলাদেশে এসে মাথা ঘামায়। সেখানে শ্রমনীতি কতটুকু বাস্তবায়ন হচ্ছে তা আমাদের জানা দরকার।

মুজিবুল হক চুন্নু বলেন, আমেরিকা কারখানার পরিবেশ, শ্রমিক নিরাপত্তা নিয়ে বড় বড় কথা বলে। কিন্তু তারা তো বাংলাদেশের পণ্যের দাম বাড়ানোর বিষয়ে কথা বলে না।

সংবিধানে অনেক আইন আছে। কিন্তু সব আইন এক সাথে বাস্তবায়ন সম্ভব নয়- একথা উল্লেখ করে শ্রমপ্রতিমন্ত্রী বলেন, শ্রমিকদের স্বার্থ সংরক্ষণ করার জন্য শ্রম আইন বাস্তবায়ন করা দরকার। তবে সেজন্য অপেক্ষা করতে হবে। কারণ সব আইন একসঙ্গে বাস্তবায়ন সম্ভব নয়।

হরতাল প্রসঙ্গে জাতীয় পার্টির এই শীর্ষ নেতা বলেন, হরতাল দিয়ে সরকারবিরোধী আন্দোলন করতে হবে সংবিধানে এমন কোনো আইন নেই। কিন্ত এখন এটা বাংলাদেশের সংস্কৃতিতে পরিণত হয়েছে।

তিনি বলেন, হরতাল দেওয়ার ১৫ দিন আগে নোটিস দিতে হবে এবং হরতালের হুকুমদাতাকে আইনের আওতায় আনতে হবে’ এমন একটি আইন করার প্রস্তাব দিয়েছিলাম। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া কেউই সেটা গ্রহণ করেনি।

অনুষ্ঠানে বিএলএফ সভাপতি আব্দুল সালাম খান বলেন, সুষ্ঠু পরিবেশের কথা চিন্তা করলে হাজারীবাগ থেকে ট্যানারি শিল্প সাভারে স্থানান্তর করতেই হবে। এ ব্যাপারে সরকারও সতর্ক। তবে এক্ষেত্রে শ্রমিক-মালিকের মধ্যে বিদ্যমান সমস্যাগুলো চিন্তিত করে সমাধানের উদ্যোগ নিতে হবে।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সাধারণ সম্পাদক ড. ওয়াজেদুল ইসলাম খান, বিএলএফ সাধারণ সম্পাদক জেড এল কামরুল আনাম, বাংলাদেশ ট্যানার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি শাহিন আহমেদ প্রমুখ।

/এসএম