২০১৫ সালেও আফগানিস্তানে থাকবে মার্কিন সেনা

0
76
american soldiers
আফগানিস্তানে মার্কিন সেনার টহল।

আফগানিস্তানে ২০১৫ সাল পর্যন্ত মার্কিন সেনাদের কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাবার নির্দেশ দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা।

ওয়াশিংটনের কর্মকর্তারা বলছেন, আফগানিস্তানে এখন প্রায় ১০ হাজার মার্কিন সেনা কর্মরত রয়েছে। নতুন নীতিমালা অনুযায়ী মার্কিন সেনারা সেখানে সরাসরি জঙ্গিদের মোকাবেলা এবং একই কাজে আফগান বাহিনীকে সহায়তা করবে। আফগান বিমান বাহিনীকেও অভিযান পরিচালনায় সহায়তা করবে মার্কিন সেনা।

american soldiers
আফগানিস্তানে মার্কিন সেনার টহল।

একজন মার্কিন কর্মকর্তা দেশটির গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, তালেবান যোদ্ধাদের যুক্তরাষ্ট্র ও যৌথ বাহিনীর প্রতি সরাসরি হুমকি প্রদর্শনমূলক কর্মকাণ্ড ঠেকাতে মার্কিন বাহিনী কাজ করবে।

গত মে মাসে প্রেসিডেন্ট ওবামা বলেছিলেন, আগামী বছর থেকে আফগানিস্তানে থাকা মার্কিন সেনাদের কার্যক্রম সীমিত করা হবে। কেবলমাত্র দেশটির সেনাবাহিনীকে প্রশিক্ষণ এবং আল কায়েদার বিরুদ্ধে অভিযানে কাজ করবে তারা।

২০১৫ সালের মাঝামাঝি আফগানিস্তান থেকে অর্ধেম মার্কিন সেনা সরিয়ে নেওয়ার কথাও বলেছিলেন তিনি।

বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইরাকে দীর্ঘদিন অবস্থান ও সরকারি বাহিনীকে প্রশিক্ষণ দেওয়ার পরও সেখানে আইএস জঙ্গিদের উত্থান হয়েছে। তাই আফগানিস্তানে সামরিক কর্মকাণ্ড নিয়ে নতুন পরিকল্পনা করছে যুক্তরাষ্ট্র।

গত সেপ্টেম্বরে আফগানিস্তানের নুতন প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ গ্রহণ করেছেন আশরাফ গানি। দায়িত্ব নেওয়ার পরই যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে নিরাপত্তা চুক্তি স্বাক্ষর করেন তিনি। তাতে ২০১৪ সালের পরও সেখানে মার্কিন সেনাদের অবস্থানের কথা বলা হয়েছে।

এর আগে সাবেক প্রেসিডেন্ট হামিদ কারজাই এই চুক্তি করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছিলেন।

চলতি বছরের শুরু থেকে আফগানিস্তানে থাকা প্রায় ৫০ হাজার ন্যাটো সৈন্যদের কয়েক ধাপে প্রত্যাহার করে স্থানীয় নিরাপত্তা বাহিনীকে দায়িত্ব হস্তান্তর করা হচ্ছিল।

সূত্র: বিবিসি

এমই/