‘শেখ হাসিনা তার বাবার মতো ভুল করছেন’

0
104
Fakrul
বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (ন্যাপ ভাসানী) আয়োজিত মওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানীর ৩৮তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় অতিথিরা।

প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার উদ্দেশে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আপনি আপনার বাবার মতো ভুল করছেন। দেশের মানুষ গণতন্ত্র চায়। তারা বুকের রক্ত দিতে প্রস্তুত।

Fakrul
বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (ন্যাপ ভাসানী) আয়োজিত মওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানীর ৩৮তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ছবি: খালেদুল কবির নয়ন

বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (ন্যাপ ভাসানী) আয়োজিত মওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানীর ৩৮তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

৫ জানুয়ারির নির্বাচনে বিএনপির ডাকে জনগণ সাড়া দেয়নি- প্রধানমন্ত্রীর এমন কথার জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, জনগণ সাড়া তো দিয়েছেই। তারা অনেক কিছু ত্যাগও করেছেন।

তিনি বলেন, গত নির্বাচনের সময় দেশ অচল হয়ে গিয়েছিল। গ্রামগঞ্জের মানুষ শুধু নয়; ঢাকার সচেতন মানুষও ভোট কেন্দ্রে যায়নি।

ফখরুল বলেন, ৪২টি রাজনৈতিক দলের মধ্যে ৩০টি দল নির্বাচনে অংশ নেয়নি। বাকি ১২টি দল ছিল তাদের শরীক দল। নির্বাচনে না যেতে প্রত্যাহারপত্র দিয়েছিল জাতীয় পার্টি। কিন্তু নির্বাচন কমিশন তা নাকচ করেছেন।

জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু না বললে দেশে থাকা যাবে না- এক প্রতিমন্ত্রীর এমন কথার জবাবে ফখরুল বলেন, আওয়ামী লীগ চায়, দেশের মানুষকে কৃতদাস করে রাখতে।

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত এই মহাসচিব বলেন, এয়ারপোর্টে এত স্বর্ণ কোথা থেকে আসে আর কোথায় যায়? সেই বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোনো খোঁজ নেয়নি সরকার। ভালো করে খোঁজ নিলে দেখা যাবে স্বর্ণ কারবারের সাথে আওয়ামী লীগের লোকজন জড়িত।

দেশের মানুষ অতি দ্রুত ঐক্যবদ্ধভাবে এই জালেম সরকারের বিরুদ্ধে লড়াই শুরু করবে বলে হুশিয়ার করলেন ফখরুল।

আয়োজক সংগঠনের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মো. আজহারুল ইসলামের সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য রাখেন জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টির সভাপতি শফিউল আলম প্রধান, ইসলামিক পার্টির চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ মোমিন, লেবার পার্টির চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান ইরান প্রমুখ।

এমআই/এমই/