হাসিনাকে বিজয় দিবসের উপহার দিতে চান মোদি

0
108
Hasina-Modi
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (ফাইল ছবি)
Hasina-Modi
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (ফাইল ছবি)

আগামী ১৬ ডিসেম্বরের আগেই বাংলাদেশের সাথে স্বাক্ষরিত ‘স্থল সীমান্ত চুক্তি’ লোকসভায় পাস করার উদ্যোগ নিয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার।

এক খবরে এই সময় জানিয়েছে, বাংলাদেশের বিজয় দিবসের আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উপহার দিতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এ চুক্তি লোকসভায় পাস করাতে চান।

উভয়দেশের মধ্যে ছিটমহল বিনিময় সম্পর্কিত এ চুক্তি লোকসভায় পাস হলে, তা কার্যকরে আর কোনো বাধা থাকবে না।

২০১১ সালে ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং ঢাকা সফরের সময় এ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। নিয়ম অনুযায়ী বাংলাদেশের জাতীয় সংসদে এই চুক্তি বিল হিসেবে পাস হলেও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং তৎকালীন প্রধান বিরোধী দল বিজেপির বিরোধিতায় এ বিল লোকসভায় পাস হয়নি।

ক্ষতিপূরণের শর্তে সম্প্রতি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এ চুক্তির বিরোধিতা থেকে সরে আসেন এবং ভারতে কেন্দ্রীয় সরকার গঠনের পর থেকে বিজেপি নিজেই এ চুক্তি বাস্তবায়নের চেষ্টা চালাচ্ছে। ফলে এখন লোকসভায় এ বিল পাসে তেমন কোনো বাধা নেই।

এই সময় আরও জানিয়েছে, লোকসভার শীতকালীন অধিবেশনে এ চুক্তি অনুমোদনের পরেই বাংলাদেশ সফরে আসবনে মোদি। প্রতিবেশী নেপাল, ভুটান, মায়ানমারে গেলেও এখনও বাংলাদেশ সফরে আসেননি তিনি। তার অন্যতম কারণ বাংলাদেশের সঙ্গে ছিটমহল বিনিময় ও তিস্তা চুক্তি দীর্ঘদিন ধরে বকেয়া পড়ে থাকা। তিস্তা নিয়ে মমতা আগের আপত্তি থেকে সরে আসেননি। ফলে পশ্চিমবঙ্গের বিরোধিতাকে উড়িয়ে দিয়ে তিস্তা চুক্তি করা সম্ভব নয়। কিন্ত্ত ছিটমহল বিনিময় চুক্তির রূপায়ণ সম্ভব। তাই বাংলাদেশের মানুষকে এই উপহার দিতে পারলে মোদীর ঢাকা সফর সফল হবে৷। মোদি প্রধানমন্ত্রী হিসাবে শপথ নেওয়ার সময় হাসিনাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন। কিন্ত্ত সে সময় বিদেশ সফররত হাসিনা আসতে পারেননি। সীমান্ত চুক্তি লোকসভায় অনুমোদিত হলে হাসিনাও ভারতে আসতে পারবেন।