খুলনায় ২৩০টি ভোটকেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ

0
78
দশম সংসদ নির্বাচন

দশম সংসদ নির্বাচনদশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে খুলনার তিনটি সংসদীয় আসনের ৩৬০টি ভোটকেন্দ্রের মধ্যে ৪৯টি কেন্দ্রকে অধিক ঝুঁকিপূর্ণ এবং ১৮১টি কেন্দ্রকে ঝুঁকিপূর্ণ আর বাকি ১৩০টি কেন্দ্রকে সাধারণ হিসেবে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারীবাহিনী চিহ্নিত করেছে। রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে জমা দেওয়া প্রতিবেদনে এসব কেন্দ্রগুলোকে গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে।

ভোট কেন্দ্রগুলোর অবস্থান এবং ঝুঁকি বিবেচনায় কেন্দ্রগুলোকে তিনটি ভাগে ভাগ করেছে স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন। এর মধ্যে বেশি ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রকে অধিক গুরুত্বপূর্ণ, ঝুঁকিযুক্ত কেন্দ্রকে গুরুত্বপূর্ণ এবং কোনো ঝুঁকি নেই কেন্দ্রকে সাধারণ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে।

নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, পুলিশের দেওয়া এই তালিকায় খুলনা-১ আসনের ৯৮টি ভোটকেন্দ্রের মধ্যে ৩২টিকে অধিক গুরুত্বপূর্ণ এবং ২২টিকে গুরুত্বপূর্ণ এবং ৪৪টি কেন্দ্রকে সাধারণ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। খুলনা-২ আসনের ১৫৭টি ভোটকেন্দ্রের মধ্যে ১১৯টিকে গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্র হিসেবে চিহ্নিত করেছে তারা। এই আসনে অধিক গুরুত্বপূর্ণ কোনো কেন্দ্র নেই, সাধারণ রয়েছে ৩৮টি। খুলনা-৩ আসনের ১০৫টি কেন্দ্রের মধ্যে ১৭টি অধিক গুরুত্বপূর্ণ এবং ৪০টি গুরুত্বপূর্ণ এবং ৪৮টি সাধারণ কেন্দ্র রয়েছে।

খুলনার যে তিনটি আসনে নির্বাচন হচ্ছে সেখানে মোট ভোটার হচ্ছেন- ছয় লাখ ৭১ হাজার ৯৬৫ জন। এর মধ্যে খুলনা-১ আসনে ভোটার রয়েছেন দুই লাখ ৩০ হাজার ৩২০ জন। এই আসনে ভোট কেন্দ্র ৯৮টি এবং বুথ রয়েছে ৫০১টি। খুলনা-২ আসনে ভোটার হচ্ছে দুই লাখ ৬৩ হাজার ১৬০ জন। এখানে ১৫৭টি ভোটকেন্দ্র ও ৬৭৫টি বুথ রয়েছে। খুলনা-৩ আসনে ১ লাখ ৭৮ হাজার ৪৮৫ জন ভোটার এবং ১০৫টি ভোটকেন্দ্র ও ৪১৭টি বুথ রয়েছে।

এদিকে শনিবার সকাল থেকে জেলা স্টেডিয়ামের জিমনেশিয়াম থেকে প্রিজাইডিং অফিসারদের ব্যালটবাক্স ও নির্বাচনী মালামাল বুঝিয়ে দেওয়া হচ্ছে। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে পুলিশের মোবাইল টিম টহল শুরু করেছে নগরীর রাস্তায়। স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে নগরীর রাজপথে বিজিবি ও সেনাবাহিনী সদস্যদের টহল দিতে দেখা গেছে।

খুলনার রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক আনিস মাহমুদ বলেন, গুরুত্বপূর্ণ ভোটকেন্দ্রগুলোতে পর্যাপ্ত নিরাপত্তার জন্য সব কিছু যাচাই-বাছাই করা হয়েছে। ভোট কেন্দ্রের অবস্থান ও ওই এলাকার আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর জনবলের বিষয়টিও বিবেচনা করে সেনা সদস্য, বিজিবি, পুলিশে মোতায়েন থাকবে।

কেএফ