রাজশাহী-৬ আসনে লড়াইয়ের ব্যস্ত বর্তমান ও সাবেক সাংসদ

0
146
rajshahi 6 ashon

rajshahi 6 ashonনির্বাচনের আগ মূহুর্তে রাজশাহী-৬ (বাঘা-চারঘাট) আসনের প্রতিদ্বন্দ্বী দুই প্রার্থীর ব্যস্ততা বেড়েছে। নির্ঘুম রাত কাটিয়ে চলছে তাদের প্রচার-প্রচারণা। ইতোমধ্যে পোস্টারে পোস্টারে ছেয়ে গেছে চারঘাট-বাঘারের প্রায় সব এলাকা। মাইকিংও চলছে সমানতালে। এছাড়াও উভয় প্রার্থীই প্রতিদিন বাঘা-চারঘাটের বিভিন্ন গ্রাম ঘুরে ভোট প্রার্থনা করছেন।

আসন্ন দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির নেতৃত্বাধীন ১৮ দলীয় জোট অংশগ্রহণ না করায় এবারের নির্বাচনে রাজশাহী-৬ বাঘা-চারঘাট আসনে লড়ছেন আওয়ামী লীগের বর্তমান এবং সাবেক সংসদ সদস্য। বর্তমান সংসদ সদস্য শাহরিয়ার আলম দলীয় মনোনয়ন নিয়ে নৌকা প্রতীক এবং সাবেক সংসদ সদস্য রায়হানুল হক রায়হান স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রজাপতি প্রতীক নিয়ে লড়ছেন।

নির্বাচনের আর মাত্র দুদিন দিন বাকি থাকায় উভয় প্রার্থী ও তার সমর্থকরা বিরতিহীনভাবে ছুটছেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে। দুপুর হলেই শুরু হচ্ছে মাইকিং। মাইকিং ছাড়াও চলছে উভয় প্রার্থীর মিছিল ও সভা।

এই দলের মধ্যে স্বতন্ত্র প্রার্থী রায়হানুল হক রায়হানের স্ত্রী ও চারঘাট পৌর মেয়র নার্গিস খাতুন সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত ছুটছেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে।

শাহরিয়ার আলম ও তার সমর্থকরা বিভ্ন্নি এলাকায় ভোটারদের নিকট বাঘা-চারঘাটের উন্নয়নের কথাগুলো তুলে ধরছেন, সেইসঙ্গে এই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আবারো নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে জনগণের সেবা করার সুযোগ চাইছেন।

অন্যদিকে রায়হানুল হক রায়হান স্থানীয় ছেলের দাবি নিয়ে তার সমর্থকদের সঙ্গে ছুটছেন বাঘা-চারঘাটের প্রতিটি গ্রামাঞ্চলে। রায়হানুল হক ও তার সমর্থকরা ভোটারদের নিকট রায়হান এলাকার সন্তান, গরিবের বন্ধু, বিপদের বন্ধু, দুর্দিনের বন্ধুসহ বিভিন্ন আখ্যা দিয়ে ভোটারদের মন জয় করার চেষ্টা করছেন।

তবে অন্যবারের জাতীয় সংসদ নির্বাচন থেকে এবারের নির্বাচনে সাধারণ ভোটারদের মাঝে নেই তেমন কোনো উৎসাহ উদ্দীপনা। তারপরেও চলছে প্রচার-প্রচারাণা।

কেএফ