২০১৩ সালে রাজনৈতিক সহিংসতায় নিহত ৫০৭

0
90

Violenceবাংলাদেশের জন্য ২০১৩ সালটা ছিলো রাজনৈতিক দাঙ্গা-হাঙ্গামার বছর। বিভিন্ন রাজনৈতিক ইস্যুকে ঘিরে বছর জুড়ে সহিংস ছিলো রাজনীতির মাঠ। এ বছর রাজনৈতিক সহিংসতায় সংঘাতের ঘটনা ঘটেছে ৮৪৮টি। এতে ৫০৭ জন নিহত ও ২২ হাজার ৪০৭ জন আহত হয়েছেন। স্বাধীনতার পরে এতো বেশি হতাহতের ঘটনা ঘটেনি আর। মঙ্গলবার মানবাধিকার সংস্থা আইন ও সালিশ কেন্দ্রের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে আরব নিউজ।

আইন ও সালিশ কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী পরিচালক নুর খান লিটন জানান, ২০১৩ সালে মোট ৮৪৮ টি সংঘাতের ঘটনায় মারা গেছেন ৫০৭ জন। আহত হয়েছেন আরও ২২ হাজার ৪০৭ জন। আর এর মধ্যে ৯৪ জন আগুনে পুড়ে দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হন, এর মধ্যে ২১ জন মারা গেছেন। এর আগে ২০১২ সালে রাজনৈতিক সংঘাতের ঘটনা ঘটেছে ৫৯৫টি, আহত হয়েছেন ১০,৫২৫ জন, আর নিহত হয়েছেন ৮৪ জন।

তিনি আরও বলেন, বছর জুড়ে বিরোধী লোকজনের ওপর নির্বিচারে গুলি চালানোর মতো সহিংস ঘটনাও ঘটেছে।

এ বছর রাজনৈতিক সহিংসতায় গত বছরের তুলনায় দ্বিগুণ মানুষ নিহিত হয়েছে বলে মনে করেন তিনি। এএফপির এক প্রতিবেদনে বরাত দিয়ে পুলিশ কর্মকর্তারা নিশ্চিত করেছেন, ২০১২ সালে পুলিশের গুলিতে ২৭৮ জন নিহত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

৫ জানুয়ারি অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বাংলাদেশে সহিংসতা ও অস্থিতিশীলতা নতুন মাত্রা পেয়েছে। সাম্প্রতিক সময়ে হরতাল, অবরোধে দেশটি অচল হয়ে পড়েছে। দিন যত গড়াচ্ছে ততই হতাহতের ঘটনা বাড়ছে। গতকালই দেশের সীমান্তবর্তী জেলা মেহেরপুরে পুলিশের সাথে সহিংসতায় ১ জন জামাত কর্মী মারা গেছেন।

আরেকটি মানবাধিকার সংস্থা ‘অধিকার’ এর হিসাব মতে, রাজনৈতিক সহিংসতায় ২০১৩ সালের নভেম্বর পর্যন্ত মারা গেছেন ৩৯১ জন। এর মধ্যে শুধু নভেম্বরেই নিহত হয়েছেন ৫২ জন। আইন শৃংখলা পরিস্থিতির অবনতি মানবাধিকার পরিস্থিতির জন্য মারাত্মক হুমকি সৃষ্টি করছে উল্লেখ করে মানবাধিকার নেতৃবৃন্দ বলছেন, বর্তমানে মানুষের মনে যে নিরাপত্তাহীনতার বোধ কাজ করছে তা মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন। সামনের দিন গুলোতে এ অবস্থা চলতে থাকলে মৃত্যুর সংখ্যা আরও বাড়বে বলে মনে করেন তারা।