‘তোমাদের সহযোগিতা পেয়ে খুব উপকৃত হলাম’

0
71
state university
ত্রাণসামগ্রী তুলে দিচ্ছে স্টেট ইউনিভার্সিটির এক শিক্ষার্থী। ছবি বৃহস্পতিবার সারিয়াকান্দি থেকে তোলা।
state university
দুর্গতদের মাঝে ত্রাণসামগ্রী তুলে দিচ্ছেন স্টেট ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা। ছবিটি বৃহস্পতিবার সারিয়াকান্দি থেকে তোলা।

‘বাবা বন্যা আমার সব কিছু ভাসিয়ে নিয়ে গেছে। এই অবস্থায় তোমাদের সহযোগিতা পেয়ে খুব উপকৃত হলাম।’

বৃহস্পতিবার স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ- এসইউবির উদ্যোগে দেওয়া ত্রাণসামগ্রী হাতে পেয়ে এভাবেই নিজের অভিব্যক্তি প্রকাশ করলেন বগুড়ার সারিয়াকান্দির ষাটোর্ধ্ব এক বৃদ্ধ।

এডভেষ্ণার ক্লাবের উদ্যোগে বগুড়া জেলার সারিয়াকান্দি থানার বড়ইকান্দি গ্রামে ১৩০টি পরিবারের মধ্যে খাদ্যদ্রব্য ও ১৫০ জন ব্যক্তির মাঝে পোশাক বিতরণ করেছে এসইউবির শিক্ষার্থীরা।

এসইউবির জার্নালিজম, কমিউনিকেশন অ্যান্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগের লেকচারার শেখ জিনাত শারমিন জিতু ও কো-কারিকোলার এক্টিভিটিজ এর এক্সিকিউটিভ আতিকুল ইসলাম বন্যাদুর্গতদের হাতে এসব ত্রাণসামগ্রী তুলে দেন।

কয়েকদিন আগে বগুড়ার সারিয়াকান্দি উপজেলায় যমুনা নদীর প্রবল পানির তোড়ে বাঁধ ভেঙে পানি ঢুকে পানিবন্দী হয়ে পড়ে হাজারো মানুষ। ফলে বন্যা কবলিত এলাকায় দেখা দেয় খাদ্যসহ, বিশুদ্ধ খাবার পানির সংকট। আরও দেখা দেয় পানিবাহিত বিভিন্ন রোগ।

গত কয়েকদিনে বিভিন্ন জেলায় ত্রাণ তৎপরতা জোরদার করা হয়েছে। বন্যাকবলিত এলাকায় মেডিকেল টিম কাজ করছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পানি প্রবেশ করায় বিভিন্ন জেলায় শিক্ষা কার্যক্রম ব্যাহত হয়েছে।

স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ শিক্ষার্থীদের দেওয়া ত্রাণসামগ্রীর মধ্যে রয়েছে ৩ কেজি চিড়া, ১ কেজি গুড়, ১৫ টি ওর স্যালাইন ও ৩০ পিস করে পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট। এ ছাড়াও দেড় শতাধিক ব্যক্তিকে পোশাক প্রদান করা হয়েছে।

ত্রাণসহায়তা প্রদান করার জন্য বগুড়া জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. খোরশেদ আলমের সাথে তার কার্যালয়ে সাক্ষাতের সময় তিনি বলেন, বন্যায় বগুড়া জেলার সারিয়াকান্দি থানা খুব ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আমরা আশা করেছিলাম বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শিক্ষার্থীরা এসে তাদের মাঝে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করবে কিন্তু তা আর হয়নি।

স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশকে ধন্যবাদ আপনারা অসহায় মানুষের পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন। আমার বিশ্বাস এটি যে কোন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের জন্য অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে। মানুষের জন্য মানুষ হাত বাড়িয়ে দিবে এটিই সবার কাম্য আমরা তার ব্যতিক্রম নই।

ত্রাণবিতরণে সহায়তা করেন রুবায়েত, বাশার, শাকিব, পিয়াস, আল-আমিন, পানাম ও আরিফ।

এস রহমান/