‘যুদ্ধাপরাধীদের নয়, ভূমিদস্যুদের বিচার জরুরি’

0
65
স্থপতি মোবাশ্বের হোসেন
স্থপতি মোবাশ্বের হোসেন
স্থপতি মোবাশ্বের হোসেন

এই মুহূর্তে ৭১ সালের যুদ্ধাপরাধের বিচার বন্ধ করে ভূমিদস্যু ও জলাশয় দখলকারীদের বিচার করা জরুরি বলে মনে করেন বাংলাদেশ স্থপতি ইনস্টিটিউট (আইএবি)-এর সাবেক প্রেসিডেন্ট মো. মোবাশ্বের হোসেন।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর প্লানার্স টাওয়ারের বিআইপি মিলনায়তনে ‘ড্যাপ বাস্তবায়ন ও বর্তমান বাস্তবতা’শীর্ষক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

মোবাশ্বের বলেন, ৭১ সালে রাজাকার-আলবদররা যত মানুষকে হত্যা করছে ভূমিদস্যু ও জলাশয় দখলকারীরা ‘ভবিষ্যতের রাজাকাররা’ কয়েকগুণ বেশি মানুষকে হত্যা করার ফাঁদ তৈরি করছে। এই মুহূর্তে এদের বিচার খুবই জরুরি।

ভূমিদস্যু, জলাশয় ভরাটকারী ও নদী দখলকারীরা রাজধানী ঢাকাকে ধ্বংসের মুখে ঠেলে দিচ্ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এসব চক্রান্ত এখনই রুখে দেওয়া না হলে ভবিষ্যতে রাজধানীতে মানুষ বসবাসের আর কোনো সুযোগ থাকবে না।

আগামীতে মিঠাপানি তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতির নির্বাহী পরিচালক সৈয়দা রেজওয়ানা সিদ্দিকী বলেন, ‘সরকার বার বার ভুমিদস্যু ও জলাশয়ের কথা বলে কিন্তু দখলকারীদের চিহ্নিত করছেনা কেন? এই পর্যন্ত একজন ভূমিদস্যু কিংবা জলাশয় ভরাটকারীকে আইনের আওতায় আনেনি। প্রশ্ন হলো সরকার যদি তাদের বিচার করতে না পারে তাহলে ২০০০ সালে পরিবেশ আইন পাশ করছে কেন?’

সৈয়দা রেজওয়ানা সিদ্দিকী বলেন, মধূমতি মডেল টাউনের সঙ্গে আমাদের ব্যক্তিগত কোনো আক্রোশ নেই। শুধু এলাকাটিকে রক্ষা করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু এখন মায়াকাননকে অনুমতি দিয়ে সরকার মধুমতিকেও বৈধ করতে চায়।

তিনি বলেন, সরকার এখন আইন-শৃঙ্খলাবাহিনীর সদস্যদের বাসস্থানের ব্যবস্থা করার প্রক্রিয়া হাতে নিয়েছে। কিন্তু তাদের বাসস্থানের ব্যবস্থা করা হলে সেটা অবশ্যই কৃষিভূমি ও জলাভূমি রক্ষা করেই করতে হবে। অন্যথায় আইন-শৃঙ্খলাবাহিনীও আইনের মুখোমুখি করা হবে।

পরিকল্পনাবিদ সালমা এ সফি বলেন, একসময় ঢাকা শহর পানি শূন্য হয়ে যেতে পারে। শীতলক্ষ্যা ও বালু নদীর সংযোগস্থ থেকে ক্রমান্বয়ে উত্তর দিকের নিম্নাঞ্চলকে খুব দ্রুত সংরক্ষণ করে ঢাকা শহরকে সম্ভাব্য বিপর্যয় থেকে রক্ষা করতে হবে।

বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলনের (বাপা) সভাপতি স্থপতি মোবাশ্বর হোসেনের সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব প্লানার্স (বিআইপি) এর সাধারণ সম্পাদক আক্তার হোসেন, বাপার যুগ্ম সম্পাদক স্থপতি ইকবাল হাবিব, বাংলাদেশ স্থপতি ইনস্টিটিউটের সভাপতি সাইয়েদ আহমেদ।

 জেইউ/এসএম