২৪ ঘন্টার মধ্যে বেনজিরকে ক্ষমা চাইতে হবে: রুহুল আমিন গাজী

0
86

ruhul২৪ ঘন্টার মধ্যে ডিএমপি কমিশনার বেনজির আহমেদকে প্রেস ক্লাবে জঙ্গী আছে এমন বক্তব্যের জন্য ক্ষমা চাইতে বললেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি রুহুল আমিন গাজী।
মঙ্গলবার দুপুরে প্রেসক্লাব চত্বরে বিএফইউজে ও ডিইউজে আয়োজিত বন্ধ গণমাধ্যম খুলে দেওয়ার দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তবে তিনি এ কথা বলেন।
রুহুল আমিন গাজী বলেন, এ সময়ের মধ্যে ক্ষমা না চাইলে দেশের সাংবাদিক সমাজ এর প্রতিবাদে সোচ্চার হয়ে কঠোর কর্মসূচি দিবে।
এ সময় তিনি আইজিপির হস্তক্ষেপ কামনা করে বলেন, আপনার মাধ্যমে বেনজীরের বক্তব্য প্রত্যাহারের ব্যবস্থা করেন।
বেনজিরের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, প্রেস ক্লাবে জঙ্গী আছে এমন বক্তব্য দিয়ে আপনি বড় অন্যায় করেছেন। এ বক্তব্যের জন্য ক্ষমা না চাইলে ইতিহাসের কাঠ গড়ায় আপনাকে দাঁড়াতে হবে।
রুহুল আমিন বলেন, গাড়ি পোড়ানোর মিথ্যা অভিযোগে শত শত লোককে গুলি করে হত্যা করেছেন, হাজার হাজার নেতা-কর্মীকে গ্রেপ্তার করেছেন। আপনি তো সবই পারেন, তাহলে সাগর-রুনীর হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার করছেন না কেন?
সরকারদলীয় মন্ত্রী-এমপিদের দুর্নীতি সম্পর্কে তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশনে সামান্য তথ্য থেকে এত দুর্নীতির চিত্র বের হয়ে আসছে আর যদি তাদের সম্পূর্ণ তথ্য যাচাই করা হয় তাহলে দুর্নীতির পাহাড় বের হয়ে আসবে।
প্রধান মন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, আপনার আর প্রধানমন্ত্রী থাকার দরকার নাই। বেনজিরকে প্রধানমন্ত্রী-স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদ দিয়ে দেন। তিনি একাই সব কিছু পরিচালনা করতে পারবেন।
ডিইউজে সভাপতি আব্দুল হাই সিকদার বলেন, বাংলাদেশের গণতন্ত্র এখন বালুভর্তি আর প্রেস ক্লাবে গর্তের ভেতরে লুকিয়ে আছে। বেনজির আহমেদ পুলিশকে এখন পুলিশলীগে পরিণত করেছে।
তিনি বলেন, সীমান্তরক্ষী বিএসএফকে ঢাকায় নিয়ে এসে বাংলাদেশের সীমান্তকে হুমকির মুখে রেখেছে।
ইকবাল সোবহান চৌধূলীর সমালোচনা করে তিনি বলেন, আপনি সাগর-রুনীর রক্ত পায়ে মাড়িয়ে ঢাকায় ৩৫ টি প্লটের মালিক ও একটি টিভি চ্যানেলের মালিক হয়েছেন। তাই সাগর-রুনীর হত্যাকারীদের গ্রেপ্তারের দাবি করছেননা।
প্রেস ক্লাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন সম্পর্কে তিনি বলেন, প্রেস ক্লাবের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী কখন পতাকা উড়বে তার সিদ্ধান্ত নিবে কতৃপক্ষ।
অনুষ্ঠানে ডিইউজে সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম প্রধান, বিএফইউজের সহ-সভাপতি আমীরুল ইসলাম কাগুজি, ডিআরইউর সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস খান, সাংবাদিক নেতা নোমান প্রমুখ।
জেইউ/