‘দেশেই তৈরি হচ্ছে সৌরকোষ’

0
112
solar-panels
সোলার প্যানেল (ফাইল ছবি)

সৌরবিদ্যুতের প্রধান অনুষঙ্গ সৌরকোষ তৈরি করেছেন বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশনের বিজ্ঞানীরা। এ সৌরকোষের ইফিসিয়েন্সি (কর্মদক্ষতা) প্রায় ৬ শতাংশ । দ্রুত এ ইফিসিয়েন্সি ১৩-১৪ শতাংশে উন্নতি করা হবে। ।

বৃহস্পতিবার পরমাণু শক্তি কেন্দ্র মিলানায়তনে বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশন আয়োজিত ‘সৌরকোষ উৎপাদন ও গবেষণা’ শীর্ষক সেমিনারে  কমিশনের ইলেক্ট্রনিক ইনস্টিটিউটের পরিচালক ও সৌরকোষ তৈরি প্রকল্প পরিচালক মাহবুবুল হক একথা জানান।

মাহবুবুল হক বলেন, দেশে বিকল্প জ্বালানি হিসেবে সৌরবিদ্যুৎ ব্যাপকভাবে প্রসারিত হচ্ছে। কিন্তু সৌরবিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য প্রধান অনুষঙ্গ হলো সৌরকোষ। আর এ সৌরকোষ বিদেশ থেকে আমদানি করা হয়। তাই আমরা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সহয়তায় সৌরকোষ তৈরির প্রকল্প হাতে নেই।

তিনি বলেন, গত বছরে ডিসেম্বরে এ প্রকল্পের কাজ শুরু হয়। গবেষণার মাধ্যমে ০.৮ ইফিসিয়েন্সি থেকে ৬ শতাংশের ইফিসিএন্সির সৌরকোষ তৈরি করতে সক্ষম হয়েছে। এই এফিসিয়েন্সি ১৩-১৪ শতাংশে উন্নতি করতে পারলে তা বাজারে সরবরাহ করা সম্ভব হবে।

মাহবুবুল হক আরও বলেন, দেশে প্রচুর সৌরকোষের চাহিদা রয়েছে। কিন্তু এসব সৌরকোষ বিদেশ থেকে আমদানি করায় প্রচুর বৈদাশিক মুদ্রা খরচ হচ্ছে। তাই আমরা যদি দেশে সৌরকোষ উৎপাদন করতে পারি তাহলে প্রচুর বৈদাশিক মুদ্রা বাচবে। এতে উপকৃত হবে দেশ।

সেমিনারে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান, সরকার মনে করে বিজ্ঞান এগিয়ে গেলে দেশ এগিয়ে যাবে। তাই জ্ঞান-বিজ্ঞানে প্রসারে আমরা কাজ করে যাচ্ছি।

কমিশনের চেয়ারম্যান প্রকৌশনী মো. মনিরুল ইসলামের সভাপতিত্বে সেমিনার আরও উপস্থিত ছিলেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সচিব খোন্দকার মো. আসাদুজ্জামান, সৌরকোষ তৈরি প্রকল্পের ঊর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা এম এ রফিক আকন্দ, বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা মো. খায়রুল বাসার প্রমুখ।

এমআই/সাকি