খালেদার আপিল শুনানি শেষ, আদেশ রোববার

0
53
khaleda_court
মামলায় হাজিরা দিতে আদালতে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। ফাইল ছবি

জিয়া আরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বৈধতা ও বিচারক নিয়োগের বৈধতা প্রশ্নে খালেদা জিয়ার আপিল শুনানি শেষ হয়েছে।আগামী রোববার আদেশের দিন ধার্য করেছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

বৃহস্পতিবার প্রধান বিচারপতি মো. মোজাম্মেল হোসেনের নেতৃত্বাধীন পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চ পঞ্চম দিনের শুনানি শেষে এ আদেশ দেন আদালত।

আদালতে খালেদা জিয়ার পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী।

রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ও দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পক্ষে ছিলেন আইনজীবী খুরশীদ আলম খান।

এ দুটি মামলায় খালেদা জিয়াকে প্রধান আসামি করে ইতোমধ্যে বিচারের কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

পুরান ঢাকার বকশীবাজারে আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে স্থাপিত বিশেষ জজ আদালত-৩-এর অস্থায়ী এজলাসে মামলা দুটি সাক্ষ্য গ্রহণ পর্যায়ে রয়েছে।

গতকাল বুধবার খালেদা জিয়ার পক্ষে করা সময়ের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে দুটি মামলার সাক্ষ্য গ্রহণের পরবর্তী তারিখ ১৭ সেপ্টেম্বর ধার্য করেছেন ঢাকার বিশেষ জজ-৩-এর বিচারক বাসুদেব রায়।

প্রসঙ্গত, গত ১৯ মার্চ ওই দুই মামলায় খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৩ অভিযোগ গঠন করেন। অভিযোগ গঠনের বাতিল চেয়ে ১৩ এপ্রিল হাইকোর্টে (রিভিশন) আবেদন করেছিলেন খালেদা জিয়া।

রিভিশন আবেদন খারিজের পর মামলার কার্যক্রম স্থগিত চেয়ে ও বিচারক নিয়োগ-প্রক্রিয়ার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে ১২ মে খালেদা জিয়া দুটি রিট করেন। প্রাথমিক শুনানির পর ২৫ মে হাইকোর্টের একটি দ্বৈত বেঞ্চ বিভক্ত আদেশ দেন। এক বিচারপতি মামলার কার্যক্রম স্থগিতের পাশাপাশি রুল দেন। অপর বিচারপতি আবেদন দুটি খারিজ করে দেন।

প্রধান বিচারপতি মো. মোজাম্মেল হোসেন বিষয়টি নিষ্পত্তির জন্য হাইকোর্টের একটি একক বেঞ্চে পাঠান। দুই দিন শুনানি শেষে ১৯ জুন হাইকোর্টের একক বেঞ্চ রিট আবেদন দুটি খারিজ করার আদেশ দেন।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্টে অনিয়মের অভিযোগে ২০০৮ সালের ৩ জুলাই রমনা থানায় একটি মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। ২০০৯ সালের ৫ আগস্ট দুদক খালেদা জিয়া, তারেক রহমানসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেয়। জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টের নামে অবৈধভাবে অর্থ লেনদেনের অভিযোগে ২০১১ সালের ৮ আগস্ট খালেদা জিয়াসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে তেজগাঁও থানায় অপর মামলাটি করে দুদক।