ইবির বাস বন্ধ, ক্লাস-পরীক্ষা হয়নি

0
49
EB
ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়- ফাইল ছবি
EB
ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়- ফাইল ছবি

বাস ভাঙচুরের পর নিরাপত্তার অজুহাতে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) পরিবহন চলাচল বন্ধ রয়েছে।

গতকালের মতো বুধবারও কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহ শহর থেকে শিক্ষার্থীদের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাড়া করা কোনো বাস ক্যাম্পাসে আসেনি।

১৫ দিন ছুটি শেষে মঙ্গলবার ক্যাম্পাস খুললেও শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসে না আসায় টানা দুইদিন কোনো বিভাগে ক্লাস-পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়নি।

ক্যাম্পাস ঘুরে দেখা গেছে, ক্লাস ও পরীক্ষা না হওয়ায় কিছু শিক্ষার্থী ক্যাম্পাসের মুক্তবাংলা, স্মৃতিসৌধ, শহীদ মিনার এবং টিএসসিসিতে অলস সময় কাটাচ্ছেন।

তবে উপাচার্য অধ্যাপক ড. আবদুল হাকিম সরকার ও উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. শাহিনুর রহমান কর্মস্থলে এসেছেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহন অফিস সূত্রে জানায়, কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহ শহর থেকে বুধবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব বাস বাদে ভাড়া করা প্রায় ৩২টি বাস ক্যাম্পাসে আসেনি।

পরিবহন প্রশাসক অধ্যাপক ড. মামুনুর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, কুষ্টিয়া শহরে সোমবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫টি বাসে ভাংচুর চালায় দুর্বৃত্তরা। ফলে হামলার ভয়ে বাস মালিকরা ক্যাম্পাসে গাড়ি যেতে দিচ্ছেন না।

প্রসঙ্গত, গত ২৪ আগস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্য ও উপ-উপাচার্যের গাড়িতে হামলার চেষ্টা করলে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের ওপর গুলি চালায় পুলিশ। এতে ছাত্রলীগের ৫ নেতাকর্মী গুলিবিদ্ধসহ ১৫ জন আহত হয়। এ ঘটনার জন্য ইবিউপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. শাহিনুর রহমান এবং ছাত্রলীগের একাংশ প্রক্টরকে দায়ী করে তার পদত্যাগ দাবি করেন।

এ নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও ছাত্রলীগের মধ্যে বিভাজন তৈরি হওয়ার ফলে ক্যাম্পাস খোলা নিয়ে অচলাবস্থা তৈরি হয়। প্রায় ১৫ দিন বন্ধ থাকার পর মঙ্গলবার ইবি খুলে দেওয়া হয় এবং প্রক্টর অধ্যাপক ড. মাহবুবর রহমানকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। নতুন প্রক্টর হিসেবে সাবেক ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. ত ম লোকমান হাকিমকে দায়িত্ব দেওয়া হয়।

এর আগের দিন বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন নিরাপত্তা ও শৃঙ্খলার স্বার্থে ক্যাম্পাসে রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড নিষিদ্ধ করে। ওই দিন রাতে কুষ্টিয়া শহরের কাস্টমস মোড়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস ডিপোতে ৫টি গাড়ি ভাঙচুর করে দুর্বৃত্তরা।