অবস্থান ব্যাখ্যা করলেন ডিএমপি কমিশনার

0
87
51286_dmp-benojir
ডিএমপি কমিশনার বেনজীর আহমেদ। ফাইল ছবি

রাজধানীর আজিমপুর পুরোনো কবরস্থানের সীমানাপ্রাচীর নির্মাণে সহায়তার বিষয়ে আদালতে নিজের অবস্থান ব্যাখ্যা করলেন ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার বেনজীর আহমেদ।

51286_dmp-benojir
ডিএমপি কমিশনার বেনজীর আহমেদ। ফাইল ছবি

আজ বুধবার সকালে বিচারপতি ফারাহ মাহবুব ও বিচারপতি কাজী মো. ইজারুল হক আকন্দের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চে হাজির হয়ে নিজের অবস্থান স্পষ্ট করেন বেনজীর।

শুনানি শেষে আদালত কবরস্থানের সীমানা প্রাচীরের নির্মাণ কাজ শেষ না হওয়া পর্যন্ত বিষয়টি তদারক করতে ডিএমপিকে নির্দেশ দেন।

কবরস্থানের পশ্চিমাংশের ওপর দিয়ে রাস্তা নির্মাণের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে এ কে এম কাজী জাকির হোসেনসহ দুই ব্যক্তি ২০১২ সালের ১০ নভেম্বর একটি রিট করেন। রিটের শুনানি শেষে রাস্তার জায়গায় সীমানাপ্রাচীর পুনর্নির্মাণ করতে নির্দেশ দেন আদালত। তবে ২ বছরেও নির্দেশনা বাস্তবায়ন না হওয়ায় কবরস্থানের তদারককারী সংস্থা ডিসিসির প্রতি আদালত অবমাননার রুল জারি হয়। পৃথক এক আদেশে ১০ সেপ্টেম্বর ডিএমপি কমিশনার, লালবাগ বিভাগের উপকমিশনার ও লালবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে আদালতে হাজির হতে নির্দেশ দেন।

আজ সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ওই তিন কর্মকর্তা আদালতে হাজির হন। আদালত বলেন, ‘কী সমস্যা ছিল, তা জানতে আমরা আদেশ দিয়েছিলাম’। জবাবে ডিএমপির কমিশনার বলেন, ‘সিটি করপোরেশন আমাদের ১৬টি চিঠি দিয়েছে। এর কয়েকটিতে বলেছে, সহায়তা করেন। আবার কয়েকটিতে বলেছে, ফোর্স লাগবে। তবে কোনো দিনক্ষণ উল্লেখ করেনি।’

বেনজীর বলেন, ‘গত বছরের ২৯ নভেম্বরের আগ পর্যন্ত ৯০ শতাংশ দেয়াল ভেঙে ফেলা হয়েছে। তবে এ বছরের ১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত আমাদের কোনো চিঠি দেওয়া হয়নি। গত ২ সেপ্টেম্বর আদালতের আদেশের বিষয়টি জানিয়ে ডিসিসি একটি চিঠি দিয়েছে। সেখানে এখন সার্বক্ষণিক ফোর্স মোতায়েন রয়েছে। কার্যক্রমের অগ্রগতির কিছু স্থিরচিত্র আদালতে দাখিল করে কমিশনার বলেন, দ্রুতই কাজ শেষ হবে’।