বারকাতের মেয়াদ বাড়ানো হবে না: অর্থমন্ত্রী

0
80
অর্থমন্ত্রী আবুল মাল মুহিত। ফাইল ছবি

রোববার রাজধানীর আগারগাঁওয়ের পরিকল্পনা কমিশনের সম্মেলন কক্ষে ‘মিলেনিয়ান ডেভেলপমেন্ট গোল: বাংলাদেশের অগ্রগতি রিপোর্ট ২০১৩’ প্রকাশ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত

জনতা ব্যাংকের সদ্যবিদায়ী চেয়ারম্যান ড. আবুল বারকাতের মেয়াদ আর বাড়ানো হবে না বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত।

মঙ্গলবার সচিবালয়ে মাল্টিপারপাস ফান্ড বিষয়ক এক বৈঠকের পর অর্থমন্ত্রী সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

গতকাল সোমবার জনতা ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান হিসেবে বারাকাতের মেয়াদ শেষ হয়েছে। একই দিন অর্থমন্ত্রী মুহিত করপোরেট সামাজিক দায়বদ্ধতা (সিএসআর) বোঝেন না বলে মন্তব্য করেছিলেন জনতা ব্যাংক চেয়ারম্যান বারকাত।

রাজধানীর বাসাবোতে ‘জনতা ব্যাংক-বারডেম ইব্রাহিম নার্সিং কলেজ’ ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে বারকাত বলেছিলেন, সুনামগঞ্জের হাওরে আয়োজিত নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতার জন্য টাকা চেয়ে চিঠি দিয়েছিলেন অর্থমন্ত্রী। টাকা না দেওয়াতেই জনতা ব্যাংকের সিএসআর কার্যক্রম বন্ধ করা হয়েছে। অর্থমন্ত্রী সিএসআর বোঝেন না বলেই এমন কাজ করেছেন।

প্রতিক্রিয়ায় মঙ্গলবার অর্থমন্ত্রী বলেন, তিনি (বারকাত) আমার সম্পর্কে কী বলেছেন তা আমার মনে নেই। আমার মনে হয় পাঁচ বছর তাকে রেখেছি এটাই যথেষ্ট। তার মেয়াদ শেষ হয়েছে; আর বাড়ানো হবে না। আর মেয়াদ না বাড়ানোর জন্য তার দুঃখ থাকলেও থাকতে পারে।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের সমর্থক লোকজনের মধ্যে অনেক বুদ্ধিজীবী রয়েছেন। তাদেরকে আমাদের দেখাশোনা করতে হয়। একজন চেয়ারম্যান অব দ্য বোর্ড অনন্তকাল থাকবেন—এ রকম আশা করার কোনো কারণ নেই বলেও মন্তব্য করেন অর্থমন্ত্রী।

রাষ্ট্রায়ত্ত্ব ব্যাংকের করপোরেট সামাজিক দায়বদ্ধতা (সিএসআর) বন্ধ করার কারণ হিসেবে অর্থমন্ত্রী বলেন, কিছু ব্যাংকের বোর্ডের (পর্ষদ) মেয়াদ শেষ হয়ে যাচ্ছিল। আর এ সময়ে সিএসআর খাতে অতিরিক্ত খরচ করার একটা প্রবণতা চেয়ারম্যানদের মধ্যে দেখা যাচ্ছিলো। এ কারণে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলোর সিএসআর বন্ধ করা হয়েছে। অহেতুক টাকা খরচ না করে সিএসআর-এর আরও ভালো ব্যবহার হতে পারতো বলেও মনে করেন তিনি।

বৈঠকে সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ মোশাররাফ হোসাইন ভূইঞা উপস্থিত ছিলেন।

এসএই/