মেয়ে জন্ম দেওয়ায় পিটিয়ে হত্যা!

0
113
ছবি: সংগৃহীত
ছবি: সংগৃহীত
ছবি: সংগৃহীত

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে মেয়েশিশু জন্ম দেয়ায় শাকিলা বেগম (২০) নামে এক গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

পুলিশ জানিয়েছে, মঙ্গলবার ভোরে স্বামীর বাড়ি থেকে শাকিলার লাশ উদ্ধার করা হয়। তিনি উপজেলার কামারদহ ইউনিয়নের বেতগাড়া গ্রামের আল-আমীনের স্ত্রী ও কোচাশহর ইউনিয়নের চাঁদপাড়া গ্রামের প্রয়াত তয়েজ উদ্দিনের মেয়ে।

নিহতের স্বজনদের অভিযোগ, কন্যাশিশু জন্ম দেয়ার কারণেই তাকে পিটিয়ে ও শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে তার স্বামী। এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। ঘটনার পর থেকে তার স্বামী আল-আমীন পলাতক রয়েছেন।

মামলার বিবরণ থেকে জানা গেছে, বাবা-মাহীন শাকিলা দরিদ্র চাচার বাড়িতে বড় হন। দুই বছর আগে এলাকাবাসীর সহায়তায় আল-আমীনের সঙ্গে তার বিয়ে হয়। কিন্তু বিয়ের পর থেকেই যৌতুকের টাকার জন্য নির্যাতন শুরু করেন স্বামী। এরইমধ্যে গত ৩০ আগস্ট কন্যা সন্তান জন্ম দেয় শাকিলা। মেয়ে হওয়ায় আরও ক্ষুব্ধ হয় আল-আমীন। এমনকি ক্লিনিকে তিনি তার সন্তানকে দেখতে পর্যন্ত যায়নি।

কয়েকদিন আগে সন্তান নিয়ে স্বামীর বাড়িতে ফেরেন শাকিলা। সোমবার তাকে বেধড়ক পিটুনি দেয় তার স্বামী। একপর্যায়ে তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে তার মুখে বিষ ঢেলে দেয়। এরপর মৃতদেহ আঙ্গিনায় রেখে ঘরে তালা মেরে পালিয়ে যায় আল-আমীন।

সন্ধ্যায় আশেপাশের মানুষ শাকিলাকে পড়ে থাকতে দেখে থানায় খবর দিলে  মঙ্গলবার ভোরে শাকিলার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

গোবিন্দগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এবিএম জাহিদুল ইসলাম জানান, শাকিলার মৃতদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। হত্যা মামলা করেছেন তার স্বজনরা।

স্বামী আল-আমীনকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলে জানান জাহিদুল ইসলাম।