রাজধানীতে কলেজছাত্রীর আত্মহত্যা

রাজধানীর উত্তর শাহজাহানপুর এলাকার একটি বাসায় অর্পা হাসান (২০) নামের এক কলেজছাত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। অচেতন অবস্থায় ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে বেলা দেড়টায় মৃত ঘোষণা করেন।

শনিবার (৯ অক্টোবর) বেলা ১২টার দিকে উত্তর শাহজাহানপুর আমতলা মসজিদ সংলগ্ন ৩৭৯ নম্বর বাসায় এ ঘটনা ঘটে। নোয়াখালী চাটখিল উপজেলার হাসান ইমামের মেয়ে অর্পা। দুই বছর আগে বাবা-মায়ের বিচ্ছেদ হলে তিনি মা রুপা আহমেদের সঙ্গে থাকতেন।

অর্পার মা রুপা আহমেদ জানান, তেজগাঁও ন্যাশনাল পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের দ্বিতীয় বর্ষে কম্পিউটার সাইন্সের ছাত্রী ছিলেন। বেলা ১২টার কিছু দিকে বাজার করতে বাইরে যান রুপা। একটু পর বাসায় ফিরে অর্পার কক্ষের দরজা ভিতর থেকে বন্ধ দেখতে পান। তখন তাকে ডাকাডাকি করেও তোনো সাড়াশব্দ পাননি। পরে কক্ষের দরজা ভেঙে তাকে ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দেওয়া দেখতে পান। মেয়েকে উদ্ধার করে স্থানীয় আল বারাকা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তার অবস্থার অবনতি দেখে নিয়ে যাওয়া হয় ঢামেক হাসপাতালে। সেখানে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি আরো জানান, তিন মাস আগেও অর্পা ২০টি ঘুমের ট্যাবলেট খেয়ে হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। সবশেষ গত পরশুদিনও তিনি ঘুমের ওষুধ খান। তখন তাকে ঢামেক থেকে স্টোমাক ওয়াশ করানো হয়েছিল। তিনি খুব রাগী ও জেদি ছিল। কী কারণে এমন ঘটনা ঘটাত, সে বিষয়ে কিছু জানাতে পারেনি তার মা রুপা।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ক্যাম্পের সহকারী ইনচার্জ (পরিদর্শক) বাচ্চু মিয়া জানান, ঘটনাটি শাহজাহানপুর থানা পুলিশকে জানানো হয়েছে। মৃতদেহ মর্গে রাখা হয়েছে।

 

অর্থসূচক/এএইচআর