তিন কোম্পানির ১৬০০ কোটি টাকার বন্ড অনুমোদন

  • Musanna Sakib
  • September 5, 2021
  • Comments Off on তিন কোম্পানির ১৬০০ কোটি টাকার বন্ড অনুমোদন

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত তিনটি কোম্পানির ১ হাজার ৬০০ কোটি টাকার বন্ড অনুমোদন করেছে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

রোববার (৫ সেপ্টেম্বর) বিএসইসির ৭৯০তম সভায় এই অনুমোদন দেওয়া হয়। বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

কোম্পানি তিনটি হলো- লংকাবাংলা ফাইন্যান্স, শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক ও ইসলামী ব্যাংক। এর মধ্যে লংকাবাংলা ফাইন্যান্সের ৩০০ কোটি টাকার, শাহজালাল ইসলামী ব্যাংকের ৫০০ কোটি টাকার এবং ইসলামী ব্যাংকের ৮০০ কোটি টাকার বন্ড অনুমোদন হয়েছে।

লংকাবাংলা ফাইন্যান্সের ৩০০ কোটি টাকার (মোট ইস্যু প্রাইজ ৩৬৫.৩৩ কোটি টাকা) নন-কনভার্টেবল জিরো কুপন বন্ড অনুমোদন করেছে। উক্ত বন্ডের ডিসকাউন্ট হার ৭.২৫ শতাংশ থেকে ৯ শতাংশ; যা আর্থিক প্রতিষ্ঠান, মিউচ্যুয়াল ফান্ড, ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি, তালিকাভুক্ত ব্যাংক, সমবায় ব্যাংক, আঞ্চলিক ব্যাংক, সংগঠন, ট্রাস্ট ফান্ড ও স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান বা কর্পোরেশনসহ অন্যান্য যোগ্য বিনিয়োগকারীদের অনুকূলে প্রাইভেট প্লেসমেন্টের মাধ্যমে ইস্যু করা হবে।

এই বন্ড ইস্যুর মাধ্যমে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে অর্থ উত্তোলন করে লংকাবাংলা ফাইন্যান্স কর্পোরেট, রিটেইল এবং এসএমই সেক্টরে পুনঃবিনিয়োগ বা ঋণ প্রদান করবে। এই বন্ডের প্রতি লটের অভিহিত মূল্য ৫৩ লাখ ৬ হাজার ৭৪৩ টাকা। এই বন্ডের ট্রাস্টি আইআইডিএফসি ক্যাপিটাল এবং অ্যারেঞ্জার হিসাবে কাজ করছে গ্রিন ডেলটা ক্যাপিটাল।

শাহজালাল ইসলামী ব্যাংকের ৫০০ কোটি টাকার আনসিকিউর্ড, কন্টিজেন্ট-কনভার্টেবল, ফুল্লি পেইড আপ, নন-কিউমিলেটিভ, ব্যাসেল- ৩ কমপ্লেইন্ট পারপিচ্যুয়াল বন্ড অনুমোদন করেছে। বন্ডটির ৪৫০ কোটি টাকা প্রাইভেট প্লেসমেন্টের মাধ্যমে এবং অবশিষ্ট ৫০ কোটি টাকা পাবলিক অফারের মাধ্যমে ইস্যু করা হবে। বন্ডটির ইউনিট প্রতি অভিহিত মূল্য ৫ হাজার টাকা। বন্ডটির কুপন হার ৬ শতাংশ থেকে ১০ শতাংশ; যা আর্থিক প্রতিষ্ঠান, মিউচ্যুয়াল ফান্ড, ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি, তালিকাভুক্ত ব্যাংক, আঞ্চলিক রুরাল ব্যাংক, ট্রাস্ট, সংগঠন স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানসহ অন্যান্য যোগ্য বিনিয়েগাকারী এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীদের অনুকুলে ইস্যু করা হবে।

এই বন্ড ইস্যুর মাধ্যমে শাহজালাল ইসলামী ব্যাংকের এডিশনাল টায়ার-১ মূলধনের ভিত্তি শক্তিশালী করবে। প্রাইভেট প্লেসমেন্টের ক্ষেত্রে এই বন্ডের ন্যূনতম সাবস্ক্রিপশন ৫ কোটি টাকা এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীদের জন্য এই বন্ডের ন্যূনতম সাবস্ক্রিশন ৫ হাজার টাকা। এই বন্ডের ট্রাস্টি এমটিবি ক্যাপিটাল এবং ইস্যু ম্যানেজার হিসেবে কাজ করছে ইসলামী ব্যাংক ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট এবং ইউসিবি ইনভেস্টমেন্ট।

ইসলামী ব্যাংক ৮০০ কোটি টাকার আনসিকিউর্ড, কন্টিজেন্ট-কনভার্টেবল, ফুল্লি পেইড আপ, ফ্লোটিং রেট, নন-কনভার্টেবল ব্যাসেল- ৩ কমপ্লেইন্ট দ্বিতীয় পারপেচ্যুয়াল বন্ড অনুমোদন করেছে। বন্ডটির ৭২০ কোটি টাকা প্রাইভেট প্লেসমেন্টের মাধ্যমে এবং অবশিষ্ট ৮০ কোটি টাকা পাবলিক অফারের মাধ্যমে ইস্যু করা হবে। বন্ডটির ইউনিট প্রতি অভিহিত মূল্য ৫ হাজার টাকা। বন্ডটি আর্থিক প্রতিষ্ঠান, মিউচ্যুয়াল ফান্ড, ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি, তালিকাভুক্ত ব্যাংক, আঞ্চলিক রুরাল ব্যাংক, ট্রাস্ট, সংগঠন, স্বায়ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠানসহ অন্যান্য যোগ্য বিনিয়োগকারী এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীদের অনুকুলে ইস্যু করা হবে।

এই বন্ড ইস্যুর মাধ্যমে ইসলামী ব্যাংকের এডিশনাল টায়ার-১ মূলধনের ভিত্তি শক্তিশালী করবে। এই বন্ডের ট্রাস্টি এসবিএল ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট এবং ইস্যু ম্যানেজার হিসেবে কাজ করছে প্রাইম ব্যাংক ইনভেস্টমেন্ট এবং ইউসিবি ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড।

অর্থসূচক/এমআর/এমএস