খালেদা জিয়ার বক্তব্য জনগণ প্রত্যাখ্যান করেছে: দীপু মনি

Dipu_moni

দিপু মনি“বিরোধী দলের অভিযাত্রা কর্মসূচি সম্পূর্ণরূপে জনবিচ্ছিন্ন। তাই এই কর্মসূচি ও বিএনপি চেয়ারপারসনের বক্তব্য  দেশের মানুষ প্রত্যাখ্যান করেছে” এমন মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ডা. দীপু মনি।

সোমবার বিকেলে দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনার ধানমণ্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সাংবাদিক সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি।

এ সময় দীপু মনি তরুণ প্রজন্মের স্বার্থে ও রাজনীতিবিদদের সম্মান রক্ষায় খালেদা জিয়াকে আরও সংযমী হওয়ারও আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, “সব ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে যে কোনো মূল্যে আগামি দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে”।

দীপু মনি বলেন, “গতকাল খালেদা জিয়া সরকারকে জড়িয়ে পিলখানা হত্যাকাণ্ড, শাপলা চত্বর অভিযান, সেনাবাহিনী ইত্যাদি বিষয়ে যা বলেছেন তা সবই নির্লজ্জ মিথ্যাচার”।

বিডিআর বিদ্রোহ প্রসঙ্গে খালেদা জিয়ার উদ্দেশে প্রশ্ন রেখে দীপু মনি বলেন,  “২৫ ফেব্রুয়ারি ২০০৯ সরকারি প্রোটোকল ও কোনো রকম নিরাপত্তা ছাড়া তিনি বাসা থেকে বের হয়ে কোন অজ্ঞাত স্থানে গিয়েছিলেন? এটা কিসের ইঙ্গিত?  মহাজোট সরকার এই হত্যাকাণ্ডের বিচার করেছে”।

খালেদা জিয়া তাঁর বক্তব্যে আলেম-ওলামাদের ওপর নির্যাতনের কথা বলেছেন তাকে  নির্লজ্জ মিথ্যাচার হিসেবে উল্লেখ করে দীপু মনি বলেন, “বারবার বিরোধী দলের কাছে নিহত ব্যক্তিদের তালিকা দিতে বলা হলেও কোনো তালিকা পাওয়া যায়নি”।

দীপু মনি বলেন, “বিএনপি-জামায়াত দেশে উন্মত্ততা চালাচ্ছে। তাদের নাশকতা থেকে শিশু, বৃদ্ধ, নারী, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, সাংবাদিক কেউ রেহাই পাচ্ছে না। ন্যক্কারজনক এসব কর্মসূচি কখনো গণতান্ত্রিক আন্দোলন হতে পারে না। গণতন্ত্র রক্ষা করতে দশম সংসদ নির্বাচনের কোনো বিকল্প নেই। তাই সব ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে যে কোনো মূল্যে আগামী দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে”।

গোপালগঞ্জ জেলার নাম নিয়ে খালেদা জিয়া যে বিষোদগার করেছেন, তা ভাবতেও সরকারি দল লজ্জাবোধ করছে বলে জানান দীপু মনি।

এসএসআর

 

এসএসআর