সাংবাদিকদের প্রেসক্লাবের সদস্যপদ দাবি ইকবাল সোবহানের

iqbql soban

iqbql sobanআগামি ১৪ দিনের মধ্যে আওয়ামীপন্থী সাংবাদিকদের প্রেসক্লাবের সদস্যপদ দেওয়া না হলে নিজেরাই তালিকা প্রণয়ন করে তাদের সদস্যপদ আদায় করবেন বলে জানালেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী। সেই সাথে জাতীয় প্রেসক্লাবকে রাজনীতি মুক্ত না করা পর্যন্ত প্রতিদিন এখানে সভা-সমাবেশ করবে বলেও ঘোষণা দেন তিনি।

সোমবার জাতীয় প্রেসক্লাবের অভ্যন্তরে মূল ফটকে হামলার প্রতিবাদে এবং প্রেসক্লাবকে অসাংবাদিক ও রাজনীতিমুক্ত করার জন্য আয়োজিত প্রতিবাদ সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

ইকবাল সোবহান বলেন, জাতীয় প্রেসক্লাব আগামি দিনের মধ্যে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা না হলে আগামি পরশু (বুধবার) তিনি নিজের উদ্যোগে এখানে পতাকা উত্তোলন করবেন।

তিনি বলেন, জাতীয় প্রেসক্লাব একটি নিরপেক্ষ স্থান। সাংবাদিক নামধারী কতিপয় লোকজন গণমাধ্যম খুলে দেওয়ার দাবিতে দীর্ঘদিন ধরে এখানে সভা-সমাবেশ করে আসছেন। এটি একটি রাজনৈতিক সভায় পরিণত হয়েছে।

তিনি বলেন, অনেক যোগ্য সাংবাদিকদের প্রেসক্লাবের সদস্যপদ দেওয়া হয়নি। আর এজন্য তাদেরকে প্রেসক্লাবে প্রবেশ করতে দেওয়া হয় না। অথচ এখানে রাতে জামায়াত-শিবির ও বিএনপির লোকজনকে আপ্যায়ন করা হয়। এখান থেকে পোশাক পরে বের হয়ে তারা নিরীহ মানুষের উপর হামলা চালায়। তাই এ প্রেসক্লাবকে রাজনীতি মুক্ত করতে হবে।

খালেদা জিয়ার উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধে খালেদা জিয়ার কোনো ভূমিকা ছিল না। তাই দুইবার প্রধানমন্ত্রী হয়েও তিনি দেশকে ভালবাসতে পারেন নি।

তিনি বলেন, আপনি পুলিশ বাহিনীকে বেয়াদব বলেছেন। কিন্তু মনে রাখবেন এ দেশের জনগণ একদিন আপনাকেও বেয়াদব বলবে।

ডিইউজে (একাংশের) সভাপতি ওমর ফারুকের সভাপতিত্বে সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন ডিইউজে সাবেক সাধারণ-সম্পাদক আজিজুল ইসলাম ভূঁইয়া, বিএফইউজের যুগ্ম-মহাসচিব সাইফুল ইসলাম, সাবেক মহাসচিব শাহাজান মিয়া, সাবেক ডিইউজে দপ্তর-সম্পাদক বরুণ ভৌমিক নয়ন প্রমুখ।