যেকোনো মূল্যে সমাবেশে থাকবেন খালেদা: হাফিজ

মেজর হাফিজ

মেজর হাফিজখালেদা জিয়ার নেতৃত্বেই যেকোনও মূল্যেই ১৮ দলীয় জোটের আগামিকালের সমাবেশ সফল করা হবে বলে ঘোষণা দিলেন বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান মেজর (অব) হাফিজউদ্দিন আহমেদ।

শনিবার পৌনে ৭ টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে তাৎক্ষণিক এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ ঘোষণা দেন।

সকাল ১০-১১টায় দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে খালেদা জিয়া স্বশরীরে উপস্থিত থেকে এই সমাবেশের নেতৃত্ব দেবেন বলে জানান মেজর হাফিজ।

আগামিতালের সমাবেশে কোনো সংঘাত হবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে মেজর হাফিজ বলেন, আমরা শান্তিপূর্ণ সমাবেশ করব। কোন সংঘাত হবে না। আর সরকার যদি কোন সংঘাত করতে চায় তাহলে তা হবে সরকারের জন্য অশুভ। আর এর দায়ভার সরকারকেই নিতে হবে।

দেশের বিভিন্ন পয়েন্টে সরকারী দলের লোকজন লাঠিহাতে অবস্থান করছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, সরকার ঘোষণা দিয়ে দেশকে অবরুদ্ধ করে রেখেছে। কালকের সমাবেশ হবে শান্তিপূর্ণ লাল সবুজের পতাকা দিয়ে।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আমাদের নেতা-কর্মীদের রাজধানীতে আসতে সরকারী দলের কর্মীরা বাধা দিচ্ছে। সরকার নৌ-সড়ক ও রেলপথ বন্ধ করে দিয়েছে। লঞ্চ থেকে নেতা-কর্মীদের টেনে হিঁচড়ে নামানো হয়েছে। এই সরকার দেশের মানুষের ভোটাধিকার কেড়ে নিয়েছে। এখন তারা আমাদের হুমকি দিচ্ছে।

একটি সুষ্ঠু নির্বাচন চাওয়ায় সরকার আমাদের উপর অমানবিক নির্যাতন করছে উল্লেখ করে হাফিজ বলেন,  আমরা শান্তিপূর্ণ সমাবেশ করতে চাইলেও ডিএমপি আমাদের অনুমতি দেয়নি। এটি সম্পূর্ণ ষড়যন্ত্র এবং গণতনত্ন্ত্র বিরোধী।

এ সময় সরকারের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, গণতন্ত্র রক্ষার স্বার্থে আগামীকালকের সমাবেশ করার অনুমতি দিন। আগামী ৫ জানুয়ারীর নির্বাচন বন্ধ করুন। আলোচনা করে নির্বাচন করুন। দেশে শান্তি আসবে। আমরা আপনাদের শুভবুদ্ধি উদয়ের অপেক্ষায় আছি।

আগামীকালের মার্চ ফর ডেমোক্রেসি সফল করার জন্য তিনি সর্বস্তরের মানুষের প্রতি আহ্বান জানান। সেই সাথে বন্দি সকল নেতা-কর্মীর নি:শর্ত মুক্তি দাবি করেন।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির উপ-দফতর সম্পাদক শামিমুর রহমান শামিম, সহ-দফতর সম্পাদক আব্দুল লতিফ জনি, আসাদুল করিম শাহিন প্রমুখ।

জেইউ/