লাঠি ও পতাকা নিয়ে আ.লীগের প্রস্তুতি

al

al১৮ দলের ‘মার্চ ফর ডেমোক্রেসি’ প্রতিরোধে শনিবার বিকেল থেকেই ঢাকার রাজপথে লাঠি ও পতাকা নিয়ে মহড়া দেওয়ার জন্য প্রস্তুত ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। এজন্য কেন্দ্র থেকে দলীয় নেতাকর্মীদের প্রয়োজনীয় দিক নির্দেশনাও দেওয়া হয়েছে।

নেতাকর্মীদের দিক নির্দেশনা দিতে শনিবার দুপুরে বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জরুরী বর্ধিত সভা করেছে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ।

সভায় শনিবার বিকেল ৩টা থেকে রবিবার রাত ১২টা পর্যন্ত লাঠি ও পতাকা নিয়ে রাজধানীর বিভিন্ন পয়েন্টে দলীয় নেতাকর্মীদের অবস্থান করার জন্য নির্দেশনা প্রদান করেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ-সম্পাদক মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, শনিবার বিকেল থেকে রবিবার রাত ১২টা পর্যন্ত প্রতিটি ওয়ার্ড ও থানার সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকরা তাদের নেতাকর্মীদের নিয়ে খালেদার সন্ত্রাসী বাহিনীকে লাঠি আর পতাকা নিয়ে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।

এ সময় তিনি কয়েকটি পয়েন্টে নেতাকর্মীদের প্রস্তুত থাকার নির্দশ দেন। পয়েন্টগুলো হলো-রাজধানীর সদরঘাট, পোস্তগোলা, কেরানীগঞ্জ, যাত্রাবাড়ি, উত্তরা, আমিন বাজার ও কমলাপুর রেলস্টেশন।

এ সময় তিনি বিরোধী দলীয় নেত্রীকে উদ্দেশ্য করে বলেন, গণতন্ত্র অভিযাত্রার নামে যদি জাতীয় পতাকার অবমাননা করা হয় তা হলে আপনার খবর আছে। আপনার সকল ষড়যন্ত্রের আমরা দাত ভাঙ্গা জবাব দেব।

তিনি বলেন, বিরোধী দলীয় নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সন্ত্রাসী বাহিনীরা যেখানেই অবস্থান নেবে সেখান থেকে খুঁজে বের করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আমাদের অঘোষিত লড়াই চলছে। এ লাড়াইকে উজ্জীবিত রাখতে ও রাজকারমুক্ত দেশ না করা পর্যন্ত এই সংগ্রাম চলবে।

এ সময় মহানগরের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও নির্বাচিত সরকারের আইন প্রতিমন্ত্রী কামরুল ইসলাম বলেন, এখন থেকে আমাদের প্রধান করণীয় হবে ১৮ দলকে প্রতিহত করা। যেখানেই তাদের দেখা যাবে লাঠি হাতে তাদের সেখানেই প্রতিহত করা হবে।

ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এম এ আজিজের সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন সহ-সভাপতি ফয়েজ উদ্দিন মিয়া, সাংগঠনিক-সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আব্দুল হক সবুজ, দপ্তর-সম্পাদক শহীদুল ইসলাম মিলন প্রমুখ।

এমআইকে