জাহাজ উদ্ধারে গিয়ে স্নো ড্রাগন নিজেই আটকে গেছে

south poleদক্ষিণ মেরুর বরফ সাগরে আটকে পড়া জাহাজকে উদ্ধার করতে এসে নিজেই আটকা পড়ে গেল চাইনিজ জাহাজ স্নো ড্রাগন। মেরু অঞ্চলের ঠান্ডা বাতাস বরফের পুরুত্ব এত বেশি বাড়িয়ে দিয়েছে যে উদ্ধারকারী জাহাজ আর এগোতেই পারছে না। খবর সিএনএন, বিবিসি এবং ডেইলি মেইলের।

অভিযাত্রী বহনকারী জাহাজ আকাদেমিক শুকালস্কি তাসমেনিয়ার রাজধানী হতে ১৫০০ নটিক্যাল মাইল দূরে আটকা পড়েছে।
তাদের আহ্বানে সাড়া দিয়ে চাইনিজ জাহাজ জুয়ি লং বা স্নো ড্রাগন শুকালস্কি অভিমুখে যাত্রা করে। কিন্তু ঝড়ো বাতাসের প্রকোপে বরফের পুরুত্ব বেড়ে গেলে স্নো ড্রাগন নিজেই আটকা পড়ে যায়। জাহাজটি আটকে পড়া শুকালস্কি হতে ৬ নটিক্যাল মাইল দূরে অবস্থান করছে।

চলতি বছর ডিসেম্বরের ৮ তারিখ আকাডেমিক শুকালস্কি নামের রাশিয়ান জাহাজ করে ৭৪ অভিযাত্রীদের একটি দল দক্ষিন মেরু অভিমুখে যাত্রা শুরু করে। এই দলে আছেন বিজ্ঞানি এবং সাংবাদিকসহ বিভিন্ন পর্যায়ের মানুষ। এই অভিযাত্রার মূল উদ্দেশ্য হল অভিযাত্রায় নতুন প্রযুক্তি এবং সরঞ্জামের প্রভাব পর্যবেক্ষণ করা। কিন্তু ঝড়ো বাতাসের কারণে ২৫শে ডিসেম্বর জাহাজটি পুরু বরফের ফাঁদে আটকা পড়ে যায়।

শুকালস্কির অভিযাত্রীরা স্যার ডগলাস মাঊসনের পথ ধরে এগিয়ে যাচ্ছিলেন। তিনি এই পথে ১৯১১ সালে এন্টার্ক্টিকাতে এক অভিযাত্রা পরিচালনা করেছিলেন।