তীব্র শীতের কারণে বাড়ছে শিশুদের ঠান্ডাজনিত রোগ

Bhairab Picশীতের শুরুতেই ঘন কুয়াশা আর হিমেল বাতাসে ভৈরবের জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। দুর্ভোগে পড়েছেন সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষ। বিভিন্ন রোগ-বালাইয়ে আক্রান্ত হচ্ছেন শিশু ও বৃদ্ধরা। বিশেষ করে ছোট্ট শিশুদের মাঝে ঠান্ডাজনিত ডায়রিয়া ও নিউমোনিয়া প্রকট আকার ধারণ করেছে।

পৌষের শুরুতেই প্রচণ্ড শীত যেন এবার ভৈরববাসীকে জানান দিচ্ছে আগামিতে বাড়বে এর আরও তীব্রতা। নিতান্ত পেটের দায়ে যেসব খেটে খাওয়া দিন-মজুর শ্রেণির লোকজন বাইরে বের হচ্ছেন, তারা হাড় কাঁপানো শীতের তীব্রতায় হচ্ছেন জবু-থবু। অপরদিকে লেপ-কাঁথা, কম্বল আর গরম কাপড় যাদের ভাগ্যে জুটে না, তারা সামান্য খড়-খুটায় আগুন জ্বেলে শীতের তীব্রতাকে মোকাবেলা করার চেষ্টা করে যাচ্ছেন।

এদিকে প্রচন্ড শীতের কারণে শিশুদের ডায়রিয়া ও শ্বাসকষ্ট বা নিউমোনিয়ার প্রকোপ আশংকাজনক হারে বেড়েছে। ভৈরবের বেশ কয়েকটি বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিক ঘুরে দেখা যায়, সেখানকার শিশু ওয়ার্ডগুলিতে ওই রোগে আক্রান্ত শিশুদের ভীড়। হাসপাতালগুলির সূত্রে জানা যায়, প্রতিটি হাসপাতালে গড়ে ৮০/৯০টি শিশু প্রতিদিন ভর্তি হচ্ছে। যা বিগত যেকোনো বছরের তুলনায় বেশি বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

এদিকে শীতের তীব্রতা বেড়ে যাওয়ায় দরিদ্র মানুষরা ভীড় করছেন ফুটপাতের পুরনো গরম কাপড়ের বিক্রেতাদের কাছে।

কেএফ/ এআর