রাজধানীর বিভিন্নস্থানে হিজবুত তাহরীর বিক্ষোভ; গুলিবিদ্ধ ৬ , আটক ২৮

hizbut

hizbutআজ জুমার নামাজের পর রাজধানীর বিভিন্নস্থানে নিষিদ্ধ ঘোষিত সংগঠন হিজবুত তাহরীর ঝটিকা মিছিল করেছে। আর মিছিল থেকে ২৮ নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ এবং গুলিবিদ্ধ হয়েছে আরও ৬ জন।

জানা যায় শুক্রবার নামাজের পর রাজধানীর হাইকোর্টের প্রধান গেইট, কদম ফোয়ারা, সেগুন বাগিচার বারডেম-২, ঢাকা রিপোর্টারর্স ইউনিটির গলি, পুরানা পল্টন ও মৎস ভবন এলাকায় হিজবুত তাহরীর কর্মীরা বিক্ষোভ মিছিল বের করলে পুলিশ বাধা দেয়। পরে মিছিলকারীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করলে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেধে যায়। এক পর্যায়ে পুলিশ গুলি চালায়। আর এতে ঘটনাস্থলে ৬ জন গুলিবিদ্ধ হয়। আহত হয় বেশ কয়েকজন।

পূর্বঘোষিত কর্মসুচি অনুযায়ী জুমার নামাজের পর পরই বিক্ষোভ মিছিল বের করলে এদের আটক করা হয়। আটককৃতদের ১০ জনের নাম পাওয়া গেছে, এরা হলেন- মিরাজুল হক জনি, কবি মৃধা, রুবেল, খালেদ, মুগ্ধ, মুহিম, খোরশেদ, ওবায়দুল ইসলাম, মামুন ও মনিরুল ইসলাম।

এ ব্যাপারে রমনা জোনের এডিশনাল পুলিশ কমিশনার (এসি) শিবলী নোমান জানান, নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গী সংগঠনের কর্মীরা রাজধানীতে মিছিল বের করার চেষ্টা করলে তাদের আটক করা হয়।

গত কয়েকদিন আগে হিজবুত তাহরির সংগঠনের কর্মীরা রাজধানীর বিভিন্নস্থানে পোস্টারিং, লিপলেট বিতরণ ও গণমাধ্যমে প্রেস বিজ্ঞপ্তি দিয়ে  শুক্রবারে তারা সমাবেশ করবে এমন ঘোষণা দেয়। এ  ব্যাপারে আপনাদের প্রস্তুতি ছিল কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আগে থেকেই আমরা প্রস্তুত ছিলাম, রাজধানীজুড়ে কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা রাখা হয়েছিল। কিন্তু তারা নামাজের আগেই মিছিল বের করে।

তিনি বলেন, তারা বিভিন্নস্থানে ককটেল বিস্ফোরণ, গাড়িতে অগ্নিসংযোগ ও ভাংচুরের চেষ্টা চালালে তাদের আটক করা হয়।

কোন মামলা আটক দেখানো হবে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, যেহেতু এটি (হিজবুত তাহরীর) একটি সন্ত্রাসী সংগঠন তাই সন্ত্রাস বিরুধী মামলায় তাদের আটক দেখানো হবে।

জেইউ/এএস