পুলিশের ওপর হামলা হলে পুলিশও বসে থাকবে না: প্রধানমন্ত্রী

hasina

hasinaপুলিশের ওপর হামলা হলে পুলিশও বসে থাকবে না বলে হুঁশিয়ার করেছেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শুক্রবার সকালে গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় এক নির্বাচনী জনসভায় তিনি এ কথা বলেন।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিরোধীদলীয় নেতা নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্র করছেন। কিন্তু বাধা ডিঙিয়ে দেশের মানুষ ৫ জানুয়ারি নির্বাচনে ভোট দেবে।

নির্বাচন প্রতিহত করার লক্ষ্যে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ১৮ দলীয় জোটের কর্মসূচি এবং রাজশাহীতে বোমা ছুড়ে পুলিশ হত্যার ঘটনার সমালোচনায় তিনি বলেন, বিরোধীদলীয় নেত্রী নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্র করছেন। তার এই ষড়যন্ত্র জনগণ  প্রতিহত করবে।

শেখ হাসিনা আরও বলেন, পুলিশের ওপর হামলার ঘটনা বরদাশত করা হবে না। পুলিশের ওপর হামলাকরীদের রেহাই দেওয়া হবে না। তার নির্দেশেই পুলিশের ওপর হামলা হচ্ছে। আর পুলিশও এখন আর বসে থাকবে না।

নির্বাচন বানচালের চেষ্টা প্রতিহতের আহ্বান জানিয়ে আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, জনগণ ভোট দিতে চায়। সব বাধা অতিক্রম করে জনগণ নির্বাচনে ভোট দেবে। এ সময় খালেদা জিয়াকে ‘অশান্তির নেত্রী’ হিসেবেও আখ্যায়িত করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, দেশের মানুষ শান্তিতে থাকুক বিএনপি নেত্রী তা চান না। পাকিস্তানের পার্লামেন্টে শোক প্রস্তাব পাস করার পর উনি মর্মাহত হন নি। কাদের মোল্লার ফাঁসিতে তিনি মর্মাহত হয়েছেন।

বিএনপি চেয়ারপার্সনের নির্দেশই বিএনপি-জামায়াত কর্মীরা মানুষ পুড়িয়ে মারছে বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

শেখ হাসিনা বলেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর বাংলাদেশ জঙ্গি ও সন্ত্রাসী রাষ্ট্রের কলঙ্ক থেকে মুক্ত হয়েছে। বাংলাদেশ এখন শান্তি ও উন্নয়নের রোল মডেলে পরিণত হয়েছে।

এ সময় কোটালীপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সুভাস চন্দ্র জয়ধরের সভপতিত্বে কর্মীসভায় দলের কেন্দ্রীয় নেতা ও স্থানীয় নেতারা অংশগ্রহণ করেন।