সিএসইর নির্বাচন ও আপিল কমিটির চেয়ারম্যান ওয়াহিদা ও সানোয়ার

CSE
সিএসই লোগো

CSEডিমিউচ্যুয়ালাইজেশন পরবর্তী নতুন পর্ষদের চার জন শেয়ারহোল্ডার পরিচালক নির্বাচনের জন্য নির্বাচন কমিটি ও আপিল কমিটি গঠন করছে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (সিএসই)।

নির্বাচন কমিটির চেয়ারম্যান করা হয়েছে অ্যাডভোকেট ওয়াহিদা ইসলামকে ও আপিল কমিটির চেয়ারম্যান করা হয়েছে অ্যাডভোকেট কাজী সানোয়ার আহমেদকে। সিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

ডিমিউচ্যুয়ালাইজেশন আইন অনুযায়ী ডিমিউচ্যুয়ালাইজেশন পরবর্তী নতুন পর্ষদে চার জন ট্রেকহোল্ডার বা শেয়ারহোল্ডার পরিচালক থাকবে। এই চার জনকে নির্বাচিত করার জন্য চলতি মাসে একটি নির্বাচন কমিটি ও আপিল কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত নেয় সিএসই’র পরিচালনা পর্ষদ। এর আলোকেই এ কমিটি গঠন করা হয়েছে।

সিএসই সূত্রে জানা যায়, নির্বাচন কমিটির বাকি দুই সদস্য হলেন, অ্যাডভোকেট মো. আক্তার হোসেন ও সাইদুল মোস্তফা চৌধুরী। আর আপিল কমিটির অন্য দুই সদস্য হলেন, মো খোরশেদ আলম তালুকদার ও খান মোহাম্মদ নাদের।

জানা যায়, ওই কমিটিই নির্বাচনের তারিখ নির্ধারণ করবে। তবে তার আগে নির্বাচনের নীতিমালা তৈরি করতে হবে। নীতিমালা ঠিক না করে নির্বাচনের তারিখ নির্ধারণ করা যাবে না। গঠিত কমিটি সিএসইর নির্বাচন সংক্রান্ত নীতিমালা তৈরিসহ নির্বাচন পরিচালনা ও ফলাফল ঘোষণা করবেন। নির্বচনের পর কোনো প্রার্থীর নির্বাচন বিষয়ে অভিযোগ করলে পরবর্তীতে তারা আপিল বিভাগে আপিল করবে।

এ বিষয়ে সিএসই’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) সৈয়দ সাজিদ হোসেন অর্থসূচককে বলেন, চার জন শেয়ারহোল্ডার পরিচালক নির্বাচন করার জন্য চলতি মাসে সিএসই’র পরিচালনা পর্ষদ  কমিটি গঠন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এর আলোকে আইন অনুযায়ী আমরা দুইটি কমিটি গঠন করেছি। এই কমিটি নির্বাচন ও আপিল সংক্রান্ত সকল কার্যক্রম পরিচালনা করবে।

তিনি বলেন, যথাসময়ে আমরা সব কাজ শেষ করবো। এতে আইনের কোনো ব্যত্যয় ঘটানো হবে না বলে জানান তিনি।

জিইউ/এআর