অবরোধের প্রভাব পড়েনি বন্দরের আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্যে

32
Hili

Hili-sm20130920073933বিরোধী দলের ডাকা ৮৩ ঘণ্টা অবরোধের শেষ দিনে আজ মঙ্গলবার সকাল থেকেই হিলি স্থলবন্দরে আমদানি রপ্তানি বাণিজ্য পুরোদমে শুরু হয়েছে। ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট দিয়ে পাসপোর্টধারী যাত্রীদের যাতায়াত রয়েছে চালু ।

বাংলাহিলি সিএন্ড এফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সচিব শাহিনুর ইসলাম শাহিন জানান, দুপুর ১২ টা থেকেই ভারত থেকে পন্যবাহী ট্রাক হিলি স্থলবন্দর দিয়ে বাংলাদশে প্রবেশ করতে শুরু করেছে। এর আগে সকালে বন্দরের ভেতর থেকে ভারতীয় খালি ট্রাকগুলো বন্দর ছেড়ে গেছে। বন্দরের সকল শ্রমিকরা তাদের কাজে যোগদান করেছেন এবং বন্দরের ভেতরে পণ্য লোড আনলোড ব্যাবস্থা পুরোদমে শুরু হয়েছে।

অবরোধের সমর্থনে বিএনপি সহ ১৮ দলীয় জোটের কোন নেতা কর্মীদের হিলি স্থলবন্দর সহ উপজেলায় মিছিল বা পিকেটিং করতে দেখা যায়নি।

অবরোধের কারণে হিলি থেকে সকল রুটে যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। তবে স্থানীয় যানবাহনগুলো ভ্যান রিক্সা, ইজিবাইক, টেম্পু চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। হিলি রেলওয়ে স্টেশন দিয়ে যথারীতি সকল ট্রেন ছেড়ে গেছে। হিলি স্থলবন্দরের আমদানি কারক সোহেল রানা জানান, আজ অবরোধের শেষ দিন তাই ভারত অংশে ও হিলি স্থলবন্দরে আটকা পড়া পণ্যগুলি খালাস করে দেশের অভ্যন্তরে পাঠানো যাচ্ছে।  এর ফলে বন্দর দিয়ে আজ বেশি পরিমাণ পণ্য আমদানি রপ্তানি হচ্ছে।

হিলি ইমিগ্রেশন চেকপোষ্টের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা খাজা মুদ্দিন জানান, অবরোধে যাত্রীবাহী বাস চলাচল বন্ধ থাকায় ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট দিয়ে যাত্রি পারাপার স্বাভাবিকের তুলনায় কম হচ্ছে।

হাকিমপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এস এম আহসান হাবিব জানান, অবরোধে কেউ যেন নাশকতা সৃষ্টি করতে না পারে সেজন্য পুলিশ সতর্ক অবস্থানে রয়েছে।

এআর