নাশকতা রোধে শ্রমিকদেরও এগিয়ে আসতে হবে : বিজিএমইএ

bgmeaপোশাক কারখানার নাশকতা এড়াতে উদ্যোক্তা ও মালিকদের পাশাপাশি শ্রমিকদের আরও সচেতন হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন বিজিএমইএর সহ-সভাপতি রিয়াজ বিন মাহমুদ। তাছাড়া কারখানা ধ্বংস করে শ্রমিকদের চাকরি হারানোর বিষয়টি কোনো সুফল বয়ে আনবে না বলেও মনে করেন তিনি।

বুধবার দুপুরে সংগঠনটির নূরুল কাদের মিলনায়তনে স্মার্ট ফ্যাশনস লিমিটেড কারখানার ২৬৪ জন শ্রমিকের বকেয়া বেতন প্রদান অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

পোশাক খাত এখন একটা শঙ্কার মধ্য দিয়ে পার হচ্ছে। রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে বিদেশি ক্রেতারা তাদের ব্যবসা অন্য দেশে সরিয়ে নিচ্ছে। তাতে ভারত ও ভিয়েতনাম বেশি লাভবান হচ্ছে বলে মনে করেন তিনি।

তাছাড়া কমপ্লায়েন্স ইস্যুতে বিজিএমইএ অ্যাকর্ডের স্টিয়ারিং কমিটিতে সদস্য হিসেবে রাখা হয়নি। বিজিএমইএকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে অ্যাডভাইজারি কমিটিতে। তাই কারখানাগুলোকে সুষ্ঠুভাবে পরিদর্শনের স্বার্থে বিজিএমইএকে অ্যাকর্ডের স্টিয়ারিং কমিটিতে অন্তর্ভুক্ত করার কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, ইতোমধ্যে কারখানা পরিদর্শনের পর ২১টি কারখানাকে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। তবে বিজিএমইএ আশা করে তারা এটাকে আবার আপগ্রেড করবেন। যাতে এসব কারখানার শ্রমিকরা চাকরি না হারায়।

অনুষ্ঠানে স্মার্ট ফ্যাশনের ২৬৪ জন শ্রমিককে ৫ হাজার টাকা হিসেবে একত্রে  মাসের বেতন প্রদান করা হয়। এর আগে নিহত ৮ জন শ্রমিকের প্রত্যেকে ১০ লাখ টাকা প্রদান করা হয়ে ছিল। আর আহত ২৪ জনের মধ্যে ২১ জনের প্রত্যেকে ৫ লাখ টাকা প্রদান করা হয়েছিল। আজ বাকি ৩ জনের মধ্যে পারভিন, রাবেয়া ও ঝরণাকে ৫ লাখ টাকা করে দেওয়া হলো। একই অনুষ্ঠানে এক্সপেক্ট ট্রাম কারখানায় ক্ষতিগ্রস্ত দুই শ্রমিক মরিয়ম বেগমকে ৫ লাখ ২৮ হাজার ৩০০ টাকা ও নাদিয়া আক্তারকে ৪ লাখ ১৪ হাজার ১৬ টাকা প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানে ইন্ডাস্ট্রি অল বাংলাদেশে কাউন্সিলের সেক্রেটারি জেনারেল বাবু রায় রমেশ চন্দ্র বলেন, আজকের এই বেতন বিদেশি ক্রেতাদের কাছ থেকে দেওয়া হচ্ছে। নামকরা ক্রেতা প্রতিষ্ঠান ইনডিটেক্স ও নিউ লুকের যৌথ উদ্যোগে এই অর্থ প্রদান করা হচ্ছে বলে জানান তিনি।

তিনি আরও বলেন, স্মার্ট ফ্যাশন কারখানাটি বিজিএমইএ ও বিকেএমইএ কিংবা ক্রেতা প্রতিষ্ঠান ইনডিটেক্স ও নিউ লুকের সদস্য না হওয়া সত্ত্বেও তারা আজ পোশাককর্মীদের পাশে এগিয়ে এসেছে বলে মনে করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে বিজিএমইএ’র সাবেক সহ-সভাপতি ফারুক হাসান, পরিচালক মো. নাসির ও আমিনুল হক উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, চলতি বছরের ২৫ জানুয়ারি রাজধানীর মোহাম্মদপুরে বেড়িবাঁধ এলাকার তিন রাস্তার মোড়ে স্মার্ট ফ্যাশন নামের একটি পোশাক কারখানায় আগুনের ঘটনা ঘটে। তাতে অন্তত ৮ জন শ্রমিক নিহত ও ২৪ জন আহত হয়।

এসইউএম/ আর