সৌদিতে ব্যাপক শ্রমিক সংকট

বেতন বিলম্বে কোম্পানি ছাড়তে পারবে প্রবাসীরা

Saudi_Labor_ Crisissঅবৈধ অভিবাসী শ্রমিক ছাঁটাই,ধরপাকড় ও দেশে ফেরত পাঠানোর দশদিনও হয়নি। এরই মধ্যে ব্যাপক শ্রমিক সংকটে পড়েছে সৌদি সরকার। শ্রমিক স্বল্পতার কারণে দেশটির শিল্প,যানবাহন,নির্মাণ ও  বিভিন্ন ব্যবস্থাপনা খাতের কার্যক্রমে স্থবিরতা নেমেছে। তার উপর অবস্থানরত বৈধ শ্রমিকরা বাড়তি বেতন দাবি করায় এর প্রভাব স্থানীয় বাজারে পড়ার আশংকা দেখা দিয়েছে।

দ্যা কাউন্সিল অব সৌদি চেম্বার সূত্রে জানা গেছে,হাজার হাজার অবৈধ শ্রমিক ছাঁটাইয়ের কারণে ঠিকাদারি কোম্পানিগুলো নানা সমস্যায় পড়েছে।

ন্যাশনাল ট্রান্সপোর্ট কমিটির ভাইস-চেয়ারম্যান সাঈদ আল-বাসামি জানান, শ্রমিক সংকটের কারণে মারাত্মকভাবে হুমকির মুখে পড়েছে ট্রান্সপোর্ট সেক্টর।

তিনি আরও জানান,শ্রমিক স্বল্পতার কারণে পণ্য-দ্রব্য ও সেবার দাম বেড়ে যাওয়ার আশংকা দেখা দিয়েছে।

জানা গেছে,ইতিমধ্যে ট্রান্সপোর্ট সেক্টরের বিভিন্ন সেবার মাশুল ৫০ থেকে ১০০ শতাংশ বেড়েছে। শ্রমিক সংকট আরও কিছুদিন স্থায়ী হলে এটা আরও বাড়তে পারে।

এদিকে সিএসসি সংকট কাটাতে বিভিন্ন কোম্পানির মধ্যে শ্রমিক বিনিময়ের প্রস্তাব দিয়েছে দেশটির শ্রম মন্ত্রণালয়কে।

সিএসসি সূত্রে জানা গেছে,বেতন,কাজের সময়,কাজের পরিবেশ সম্পর্কিত নানা বিষয় নিয়ে সাময়িক চুক্তির ভিত্তিতে এই শ্রমিক বিনিময় হবে।

এ ব্যাপারে ন্যাশনাল ট্রান্সপোর্ট কমিটির ভাইস-চেয়ারম্যান সাঈদ আল-বাসামি জানান,এই পদক্ষেপ প্রাইভেট সেক্টরকে বর্তমান সংকট কাটিয়ে উঠতে সাহায্য করবে বলে আমি মনে করি।

তবে,ইরাম গ্রুপের সিএমডি সাদেক আহমেদ তেমনটা মনে করেন না। তিনি জানান,বৈধ নিয়োগ-প্রক্রিয়ার মাধ্যমে নতুনভাবে শ্রমিক আমদানি ছাড়া এই সংকট কাটিয়ে উঠা যাবে না।