বিএসইসিকে ডিএসইর পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা

dse_pdপুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনকে (বিএসইসি) ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা জানানো হয়েছে। ডিসএসই’র সিনিয়র সহ-সভাপতি মোহাম্মদ শাহজাহান এর নেতৃত্বে ডিএসই’র পরিচালনা পর্ষদের সদস্যরা বিএসইসি‘র চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. এম খায়রুল হোসেনের কাছে বিএসইসির কার্যালয়ে ফুলের তোড়া দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।

সম্প্রতি ইন্টারন্যাশনাল অর্গানাইজেশন অব সিকিউরিটিজ কমিশনের (আইওএসসিও) মানদণ্ডের ভিত্তিতে বিএসইসি ‘বি’ থেকে ‘এ’ ক্যাটাগরিতে উন্নীত হয়েছে। এর প্রেক্ষিতে তারা সোমবার এ শুভেচ্ছা জানান।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন বিএসইসি’র কমিশনার হেলাল উদ্দিন নিজামী, আরিফ খান ও আব্দুস সালাম সিকদার। আর ডিএসইর পক্ষে উপস্থিত ছিলেন সহ-সভাপতি মোঃ মিজানুর রহমান খান, সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি ও পরিচালক আহমদ রশিদ লালী, পরিচালক মোঃ হানিফ ভূঁইয়া, মিনহাজ মান্নান ইমন, সাহেদ আব্দুল খালেক, শরীফ আনোয়ার হোসেন, খুজিস্তা নুর-ই-নাহারীন ও কাজী আকরাম উদ্দিন আহমেদ এবং ডিএসই’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা অধ্যাপক ড. স্বপন কুমার বালা।

এ সময় মোহাম্মদ শাহজাহান বলেন, বিএসইসি‘র এই অর্জন শুধু তাদের একার নয় বরং এটি সমগ্র বাংলাদেশের পুঁজিবাজারের অর্জন। এর ফলে পুঁজিবাজার অনেক উপকৃত হবে বলে আমরা আশা করি।

তিনি বলেন, পুঁজিবাজারের গুণগত উৎকর্ষতা যে বহুগুনে বৃদ্ধি পেয়েছে এই স্বীকৃতি তার বহিঃপ্রকাশ। এই অর্জনের ফলে পুঁজিবাজার আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে সুপ্রতিষ্ঠিত হবে।

এ সময় বিএসইসি‘র  চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. এম.খায়রুল হোসেন বলেন, আজকের যে অর্জন এটি শুধু বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের  নয়, এ অর্জন সমস্ত পুঁজিবাজারের । আমরা মনে করি, আজকে কমিশন যে ‘এ’ ক্যাটাগরীতে উন্নীত হয়েছে তার গর্বিত অংশীদার দেশের সবার।

তিনি বলেন, এই অর্জনের ফলে বিশেষ করে যাঁরা পুঁজিবাজারের সাথে সরাসরি জড়িত তাঁরা সকলে তথা সমগ্র বাংলাদেশ উপকৃত হবে।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার রাতে স্পেনের মাদ্রিদে অবস্থিত আইওএসসিওর প্রধান কার্যালয় থেকে ক্যাটাগরি পরিবর্তনের বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়।

এর ফলে বিএসইসি আন্তর্জাতিকভাবে এনফোর্সমেন্টের জন্য বৃহত্তর সহযোগিতা পাবে এবং সহযোগিতা দিতে পারবে। বিএসইসি আইওএসসিওর বিভিন্ন নেতৃস্থানীয় পদে নিয়োগ/নির্বাচনের যোগ্যতা অর্জন করবে এবং বিএসইসি আইওএসসিওর নীতিনির্ধারণী কমিটিতে অন্তর্ভুক্তির যোগ্যতা অর্জন করবে।

এর আগে ২০০৯ সালে বিএসইসির পক্ষ থেকে আইওএসসিওর কাছে ক্যাটাগরি পরিবর্তনের জন্য প্রথম আবেদন করা হয়। এরপর দ্বিতীয়বার আবেদন করা হয় ২০১২ সালে।

বিভিন্ন দেশের পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থার সমন্বয়ে গঠিত শীর্ষস্থানীয় আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান আইওএসসিওর সাধারণ সদস্য হিসেবে ১৯৯৫ সালে বিএসইসি যোগ দেয়।

জিইউ