কাবায় ৭২ ভাষার কোরআন
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » আন্তর্জাতিক

কাবায় ৭২ ভাষার কোরআন

men reads holy Quran in Makkah masjid

মক্কার মসজিদে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করছেন কয়েকজন। ছবি: আরবনিউজ

আসন্ন রমজান উপলক্ষে কোরআন তেলাওয়াতের জন্য ব্যাপক প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে কাবা শরীফে। ৭২টি বিদেশি ভাষায় অনুবাদ করা হয়েছে পবিত্র গ্রন্থটি।

কাবা শরীফের সভাপতিমণ্ডলির জেষ্ঠ্য সদস্য আলী হামিদ আল নাফজি আরবনিউজকে জানান, কাবা শরীফের ভেতরে ৪ হাজার সেলফে কোরআনের সাড়ে ৯ লাখ কপি রয়েছে। বিভিন্ন দেশের অধিবাসীদের জন্য ভিন্ন ৭২টি ভাষায় এই পবিত্র গ্রন্থটি অনুবাদ করা হয়েছে।

তিনি বলেন, প্রযুক্তিনির্ভর আধুনিক রাষ্ট্র করার প্রয়াসে কাজ করছি আমরা। স্মার্টফোনের সাহায্যে কোরআন তেলাওয়াত করতে পারবেন সকলে। পছন্দের ভাষায় কোরআন তেলাওয়াত করতে যে কোনো স্মার্টফোনে বারকোড রিডার সফটওয়্যারের সাহায্যে কোরআন ডাউনলোড করা যাবে।

পবিত্র কোরআনের অনুবাদ ও বিবরণ পাওয়া যাবে এই সফটওয়্যারে।

সিংহলী, চাইনিজ, তেলেগু এবং সোমালিসহ বিশ্বের প্রধান ভাষাগুলোতে একে অনুবাদ করা হয়েছে বলে জানান আলী হামিদ আল নাফজি।

তিনি আরও জানান, তারাবি এবং তাহাজ্জুত নামাজের জন্য ছয়জন ইমাম নিয়োগ দেওয়া হয়েছে কাবা শরীফে। রমজান মাসে তারাবি নামাজের সাথে কোরআন খতমে নেতৃত্ব দেবেন আবদুল রহমান আল সৌদি।

স্থানীয় পুলিশ কর্মকর্তারা জানান, কাবা শরীফে উপস্থিত বিভিন্ন দেশের মানুষের নিরাপত্তায় ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে কর্তৃপক্ষ। কাবা শরীফের ভিতরে বিভিন্ন স্থানে ২০০০ ক্যামেরার সাহায্যে নজরদারি করা হবে। মক্কার কোলাহলপূর্ণ এলাকগুলোও নিরাপত্তা ব্যবস্থার আওতায় থাকবে।

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে মক্কা আঞ্চলিক পুলিশের প্রধান কর্মকর্তা মেজর জেনারেল আবদুল আজিজ আল-আসোলি জানান, মসজিদের কোলাহলপূর্ণ জায়গাগুলোতে অতিরিক্ত নজরদারি করা হবে।

ট্রাফিক পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়, রমজানে পথচারীদের চলাচল সহজ করতে নির্দিষ্ট এলাকায় পরিবহন চলাচল কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করা হবে।

সূত্র: আরবনিউজ

এমই/

এই বিভাগের আরো সংবাদ