দর পতনে ছয় খাতের সেঞ্চুরি
শুক্রবার, ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » পুঁজিবাজার

দর পতনে ছয় খাতের সেঞ্চুরি

dseসপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস রোববার দেশের উভয় পুঁজিবাজারে ব্যাপক দর পতন হয়েছে। এদিন ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ৭৯ শতাংশ কোম্পানি শেয়ারের দর হারিয়েছে। এর মধ্যে ছয় খাতের সবগুলো কোম্পানির শেয়ার দর কমেছে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

বাজার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, টানা উর্ধ্বমুখী থাকার পর এটি স্বাভাবিক মূল্য সংশোধন। এ ছাড়াও বর্তমানে আবারও রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতার দিকে এগুচ্ছে দেশ।

 

এদিকে এদিন রাজধানীর আগারগাঁওয়ে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থার বিএসইসির নিজস্ব ভবনের ভিত্তি প্রস্তরের উদ্বোধনের সময় করা প্রধানমন্ত্রীর মন্তব্যের প্রভাবও বাজারে পড়েছে বলে মনে করেন অনেকে। অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, লাভ হলে আমার,আর লোকসান হলে সরকারের দোষ-এটা ঠিক নয়। বিনিয়োগকারীরা তার এ বক্তব্যে নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছে।

 

এবিষয়ে এএফসি ক্যাপিটালের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মাহবুব এইচ মজুমদার অর্থসূচককে বলেন, আজকের দর পতনটি বাজারের স্বাভাবিক মূল্য সংশোধন। টানা বাজার উর্ধ্বমূখী থাকার কারণে অনেক কোম্পানির শেয়ারের দামে একটি গ্যাপ তৈরি হয়েছে। এ কারণে অনেক বিনিয়োগকারীদের মধ্যে মুনাফা তুলার প্রবণতা দেখা গেছে। সে জন্য বাজারের এ অবস্থা।

 

তিনি বলেন, এতে করে ভয়ের কোনো কারণ নেই। আমরা আশা করি আগামিকাল আবার বাজার ব্যাক করবে।

 

বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়,রোববার ব্যাংক খাতের ৩০টি, সিমেন্ট খাতের ৭টি, সিরামিক্স খাতের ৫টি,জুট খাতের তিনটি,পেপার অ্যান্ড প্রিন্টিং খাতের একটি, টেলিকমিউনিকেশন খাতের ২টি কোম্পানির মধ্যে সবগুলোর দরই কমেছে।

 

এছাড়াও আর্থিক খাতের ৯৫ দশমিক ৬৫ শতাংশ, বিবিধ খাতের ৮৮ দশমিক ৮৮ শতাংশ, বিমা খাতের ৮৪ দশমিক ৭৮ শতাংশ, বস্ত্র খাতের ৮৩ দশমিক ৮৭ শতাংশ, আইটি খাতের ৮৩ দশমিক ৩৩ শতাংশ, ওষুধ ও রসায়ন খাতের ৭৫ শতাংশ, প্রকৌশল খাতের ৭২ এবং খাদ্য খাতের দর হারিয়েছে ৭০ দশমিক ৫৮ শতাংশ।

 

এর মধ্যে ব্যাংক খাতরে এবি ব্যাংক লিমিটেডের শেয়ারের দর কমেছে ৩০ পয়সা বা ১ দশমিক ৭ শতাংশ। আল আরাফা ইসলামী ব্যাংকের শেয়ারের দর এক টাকা দশ পয়সা বা ৫ দশমিক ৩৭ শতাংশ,ব্যাংক এশিয়া লিমিটেডের ৩০ পয়সা বা এক দশমিক ৫৫ শতাংশ,ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেডের ৩০ পয়সা বা ৯৩ শতাংশ,সিটি ব্যাংকের ৬০ পয়সা বা দুই দশমিক ৭৩ শতাংশ,ঢাকা ব্যাংকের ৬০ পয়সা বা দুই দশমিক ৯৭ শতাংশ,ডাচ্ বাংলা ব্যাংকের দশ পয়সা বা দশ শতাংশ,ইস্টার্ন ব্যাংকের ৮০ পয়সা বা দুই দশমিক ৬৮ শতাংশ,এক্সিম ব্যাংকের ২০ পয়সা বা এক দশমিক ৪৭ শতাংশ,ফার্স্ট সিকিউরিটি ব্যাংকের ৭০ পয়সা বা চার দশমিক ১৭ শতাংশ,আইসিবি ইসলামিক ব্যাংকের দশ পয়সা বা এক দশমিক ৫৯ শতাংশ,আইএফআইসি ব্যাংকের এক টাকা ৪০ পয়সা বা চার দশমিক তিন শতাংশ,ইসলামী ব্যাংকের ৩০ পয়সা বা ৮২ শতাংশ,যমুনা ব্যাংকের ৩০ পয়সা বা এক দশমিক ৮১ শতাংশ,র্মাকেন্টাইল ব্যাংকের ৬০ পয়সা বা তিন দশমিক ৫৭ শতাংশ,মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের দশ পয়সা বা ৬১ শতাংশ,এনবিএলের ৩০ পয়সা বা দুই দশমিক ৩৩ শতাংশ,এনসিসি ব্যাংকের ৪০ পয়সা বা দুই দশমিক ৭২ শতাংশ,ওয়ান ব্যাংকের ৫০ পয়সা বা ২ দশমিক ৮৯ শতাংশ,প্রিমিয়ার ব্যাংকের ২০ পয়সা বা এক দশমিক ৬০ শতাংশ,প্রাইম ব্যাংকের ৪০ পয়সা বা এক দশমিক ৬১ শতাংশ,পূবালী ব্যাংকের ২০ পয়সা বা ৬৩ শতাংশ,রূপালি ব্যাংকের এক টাকা দশ পয়সা বা এক দশমিক ৬৪ শতাংশ,শাহজালাল ইসলামী ব্যাংকের ২০ পয়সা বা এক দশমিক ১১ শতাংশ,সোস্যাল ইসলামী ব্যাংকের ৩০ পয়সা বা দুই দশমিক সাত শতাংশ,সাউথইস্ট ব্যাংকের ৭০ পয়সা বা তিন দশমিক ৭২ শতাংশ, র্স্ট্যান্ডাড ব্যাংকের ৩০ পয়সা বা এক দশমিক ৯৪ শতাংশ,ট্রাস্ট ব্যাংকের ৫০ পয়সা বা এক দশমিক ৪৯ শতাংশ,ইউনাইটেড কর্মাশিয়াল ব্যাংকের ৯০ পয়সা বা তিন দশমিক ৫০ শতাংশ,উত্তরা ব্যাংকের ৩০ পয়সা বা ৯২ শতাংশ শেয়ারের দর কমেছে।

 

সিমেন্ট খাতের আরামিট সিমেন্টের শেয়ারের দর কমেছে তিন টাকা ২০ পয়সা বা চার দশমিক ২৮ শতাংশ। এছাড়া কনফিডেন্স সিমেন্টের এক টাকা ৮০ পয়সা বা এক দশমিক ৪২ শতাংশ,হাইডেলবার্গ সিমেন্টের ছয় টাকা ৯০ পয়সা বা এক দশমিক ৭৪ শতাংশ, লাফার্জ সুরমা সিমেন্টের ৫০ পয়সা বা এক দশমিক ৫৫ শতাংশ,মেঘনা সিমেন্টের চার টাকা ৬০ পয়সা বা তিন দশমিক ৫৩ শতাংশ,এম আই সিমেন্টের এক টাকা ৬০ পয়সা বা এক দশমিক ৮৫ শতাংশ এবং প্রিমিয়ার সিমেন্টের এক টাকা ৩০ পয়সা এক দশমিক ২৫ শতাংশ শেয়ারের দর কমেছে।

 

সিরামিক খাতের ফু-ওয়াং সিরামিকের দর কমেছে ৬০ পয়সা বা তিন দশমিক ২৬ শতাংশ। এছাড়া মুন্নু সিরামিকের এক টাকা বা তিন দশমিক ছয় শতাংশ, আরএকে সিরামিকস ৪০ পয়সা বা ৭৫ শতাংশ,শাইনপুকুর সিরামিকস ৭০ পয়সা বা তিন দশমকি ৮৩ শতাংশ এবং স্ট্যান্ডার্ড সিরামিকের ১০ পয়সা বা ২৬ শতাংশ শেয়ারের দর কমেছে।

 

এমআরবি/জিইউ

 

 

এই বিভাগের আরো সংবাদ