অর্থ আত্মসাতের দায়ে ইউএনওসহ ১৬ জনের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

Dudakসরকারি জমি ব্যক্তি মালিকানায় নামজারি করে প্রায় ৪০ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে খুলনার বটিয়াঘাটি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ ১৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

বৃহস্পতিবার বিকেলে দুদকের উপ-সহকারী পরিচালক যতন কুমার সাহা বাদি হয়ে খুলনায় মামলাটি করেন বলে জানান কমিশনের নির্ভরযোগ্য সূত্র।

মামলার এজহারে বলা হয়, খুলনার বটিয়াঘাটি উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সাজেদুর রহমান উপজেলা ভূমি অফিসের সাথে যোগসাজস করে উপজেলার ১ নং খাস খতিয়ানের ২.৩৯ একর সম্পত্তি অবৈভাবে ব্যক্তি মালিকানায়  নামজারি করে।এ সময় তিনি জমি বিক্রির কথা বলে স্থানীয় কয়েক ব্যক্তির নিকট থেকে ৩৯ লাখ ৩৭ হাজার ৬৬৬ টাকা আদায় করেন। আদায়কৃত টাকাগুলো নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা ভূমি অফিসের কর্মকর্তারা পরস্পর যোগসাজেসে আত্মসাৎ করে।

মামলায় যাদের আসামি করা হয়েছে তারা হলেন, নির্বাহী কর্মকর্তা মো.সাজেদুর রহমান,উপজেলা ভূমি অফিসের প্রধান সহকারী মো.মতিউর রহমান,ভূমি উপসহকারী কর্মকর্তা মো.কামরুজ্জামান,মোড়ল আলমগীর কবির। স্থানীয় তুলসী বিশ্বাস, তৈয়বুর রহমান, মো. জামাল বয়াতি, মো. জামাল ফরাজী, সরদার মাহবুবুর রহমান, বিশ্বজিৎ ঘোষ, মৃণাল কান্তি দে, মো. রুহুল আমিন, মো.খসরু, মো.বাদশা মিয়া, মো.আব্দুল হাফিজ ও দলিল লেখক মো. নজরুল ইসলাম। আসামিরা সবাই খুলনার দৌলতপুর উপজেলার অধিবাসী।

দুদকের উপসহকারী পরিচালক ও অনুসন্ধানকারী কর্মকর্তা জানান, আসামিরা অবৈধভাবে আর্থিক লাভবান হওয়ার আসায় সরকারি জমি নামজারি করে আত্মসাৎ করে।তাই তাদের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির ৪০৯/২১৭/১০৯ ধারা এবং ১৯৪৭ সনের ২নং দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারায় অপরাধ প্রমাণিত হওয়ায় ১টি মামলা দায়ের করা হলো।

এআর