নিম্নমানের ছবি দিয়ে খুলল হল, হতাশ চলচ্চিত্র প্রেমীরা

করোনার কারণে অন্যান্য সব কিছুর মতই দীর্ঘ সাত মাস সিনেমা হল বন্ধ ছিল। অবশেষে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টদের দাবির মুখে স্বাস্থ্যবিধি মেনে হল খোলার অনুমতি দিয়েছে সরকার।

আজ (১৬ অক্টোবর) থেকে দেশের বেশ কিছু হল খুলেছে। আর এইদিনই মুক্তি দেওয়া হয়েছে ‘সাহসী হিরো আলম’ নামের চলচ্চিত্রটি। দেশের প্রায় ৪০টি হলে ছবিটি মুক্তি দেয়া হয়েছে। তবে হল খুলেই এমন নিম্ন মানের চলচ্চিত্র মুক্তি দেওয়াকে কেন্দ্র করে অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন। দীর্ঘদিন বন্ধের পর এমন মানহীন চলচ্চিত্র দেখে হতাশ চলচ্চিত্র প্রেমীরা। অথচ মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে প্রায় ত্রিশটির মতো সিনেমা। যেগুলো বেশ মানসম্পন্ন। এমন পরিস্থিতিতে চলচ্চিত্র অভিভাবকহীন বলে মনে করছেন অনেকেই।

নিম্নমানের এমন চলচ্চিত্র দিয়ে হল খুলতে নারাজ ঢাকার ঐতিহ্যবাহী সিনেমা হল মধুমিতা। ভালো মানের নতুন চলচ্চিত্র না পেলে সিনেমা হল খুলবেন না বলে প্রতিষ্ঠানটির কর্ণধার ইফতেখার উদ্দিন নওশাদ। তিনি বলেন, ‘আমরা আবারও আগের জায়গায় ফিরে যেতে চাই না। আগের অবস্থা মানে দর্শকহীন সিনেমা হল দেখতে চাই না। শাকিব খানের নতুন কোনো ভালো চলচ্চিত্র দিয়ে সিনেমা হল খোলা উচিত ছিল।’

আজ মুক্তি পেয়েছে ‘সাহসী হিরো আলম’- এ ধরনের ছবি মুক্তি পেলে দর্শক আরো পালিয়ে যাবে দাবি করে নওশাদ বলেন, ‘আউল-ফাউল ছবি দিয়ে সিনেমা হল চলবে না। সিনেমা হল খোলাটা… ভালো মানের কোনো চলচ্চিত্র দিয়ে হওয়া উচিত ছিল। শাকিব খানের নতুন কোনো চলচ্চিত্র দিয়ে সিনেমা হল ওপেন হওয়া প্রয়োজন ছিল।’

এদিকে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট অনেকেই বলছেন, হাতে এক সপ্তাহ সময় নিয়ে হল খুলে দেওয়া উচিত ছিলো। তাহলে হয়তো বড় বড় প্রযোজকরা একটু ভেবে-চিন্তে তাদের ছবি মুক্তি দিতে পারতেন। আবার অনেকেই বলছেন দীর্ঘদিন পর হল খুলেছে সেক্ষেত্রে বড় প্রযোজকরা একটু ঝুঁকি নিতেই পারতেন।

এদিকে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান শাপলা মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার সেলিম খান বলেন, আসলে এই সময়ে আমার বড় বাজেটের ছবিগুলো মুক্তি দিতে চাচ্ছি না। পরিস্থিতি বুঝে সিনেমা মুক্তির সিদ্ধান্ত নেব। দর্শক হলে ফেরার আগ্রহটা দেখতে চাই।

অর্থসূচক/এএইচআর