৪ জনকে গলা কেটে হত্যার ঘটনায় মামলা

ছবি: সংগৃহীত

সাতক্ষীরা জেলার কলারোয়ায় একই পরিবারের চারজনকে গলা কেটে হত্যারা ঘটনায় অজ্ঞাতদের আসামি করে থানায় মামলা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৫ অক্টোবর) রাতে মামলাটি কলারোয়া থানায় নথিভুক্ত করা হয়। মামলার বাদী হয়েছেন নিহত শাহিনুর রহমানের শ্বাশুড়ি।

কলারোয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হারান চন্দ্র পাল বলেন, নৃশংস এ হত্যার ঘটনায় নিহত শাহিনুর রহমানের শ্বাশুড়ি বাদী হয়ে মামলা করেছেন। মামলার আসামি করা হয়েছে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের। এটি যে পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড তাতে কোনো সন্দেহ নেই। হত্যার রহস্য উদঘাটনে পুলিশ-সিআইডিসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সব ইউনিট কাজ করছে। এ ঘটনায় এখনো কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি।

গতকাল ভোররাতে কলারোয়া উপজেলার হেলাতলা ইউনিয়নের খলসি গ্রামের শাহজাহান আলীর ছেলে মাছের ঘের ব্যবসায়ী শাহিনুর রহমান (৪০), তার স্ত্রী সাবিনা খাতুন (৩০), ছেলে সিয়াম হোসেন মাহি (৯) ও মেয়ে তাসনিমকে (৬) ঘরের মধ্যে গলা কেটে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। ছয় মাস বয়সী অপর শিশু মারিয়াকে মায়ের লাশের পাশে রেখে যায় হত্যাকারীরা। দুপুরের দিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে পরিবারে জীবিত থাকা শিশু মারিয়ার সার্বিক দায়িত্ব নেন সাতক্ষীরার জেলা প্রশাসক এস এম মোস্তফা কামাল।

নিহতের ছোট ভাই রায়হাদুল ইসলাম দাবি করেছেন, বড় ভাই শাহিনুর রহমান ৭-৮ বিঘা জমিতে পাঙাস মাছ চাষ করতেন। ২২ বছর ধরে তাদের পারিবারিক সাড়ে ১৬ শতক জমি নিয়ে প্রতিবেশী ওয়াজেদ কারিগরের ছেলে আকবরের সঙ্গে বিরোধ চলছিল। এই মামলা ও পারিবারিক বিরোধের জেরে এই হত্যাকাণ্ড ঘটতে পারে।

সাতক্ষীরা পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, পারিবারিক বিরোধ ও শত্রুতার জেরে এ ঘটনা ঘটেছে বলে ধারণা করছি। ঘটনার মোটিভ উদঘাটন ও হত্যাকারীদের গ্রেফতারে কাজ করছে পুলিশ।

 

অর্থসূচক/এএইচআর